Tag Archives: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

দ্বিতীয় টেস্টে দল থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছে রিয়াদ!

২০০৯ সালের ৯ জুলাই সেন্ট ভিনসেন্ট টেস্টে অভিষিক্ত মাহমুদউল্লাহ প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছিলেন নিজের পঞ্চম টেস্টেই। আর সেটি হ্যামিল্টনে। ২০১০ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে প্রথম ইনিংসে আটে নেমে করা ১১৫ রানটা এখনো পর্যন্ত টেস্টে তাঁর সর্বোচ্চ। সময়ের স্রোতে পেরিয়েছে ৭ বছর ২২ দিন (২৫৭৯ দিন), এখনো টেস্টে দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটার দেখা পাননি বাংলাদেশ দলের এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান।

সাম্প্রতিক সময়ে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে নিয়মত পারফর্ম করলেও টেস্টে খুবই বাজে খেলছে এই নির্ভরযোগ্য টাইগার মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। গতকাল শেষ ও শ্রীলংকার বিপক্ষে গল টেস্টে তিনি করেছেন ৮ ও শুন্য রান। এর আগে ভারতের বিপক্ষে ২৮ ও ৬৪ রান। এর আগে নিউজিল্যন্ডের বিপক্ষে তার রান ৩৮, ১৯ ও ২৬, ৫ রান।

সুতরাং বলায় যায় টেস্টে রিয়াদের কি খারাপ দিনই যাচ্ছে। এমন অবস্থায় শ্রীলংকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে ছিটকে পড়তে পারেন তিনি। তার জায়গাতে দলে ঢুকতে পারে টেস্ট দলের নিয়মিত ওপেনার ইমরুল কায়েস। অথবা সাব্বির রহমান। তবে ইমরুলে দলে দেখার সম্ভাবনায় বেশি।

দলের একজন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান কেন দীর্ঘ দিন ধরে সেঞ্চুরি পাচ্ছেন না সেটি গবেষণার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমন নয় যে ছন্দে না থাকায় মাহমুদউল্লাহ বারবার দল থেকে বাদ পড়েছেন বা চোটের কারণে ব্যাহত হয়েছে তাঁর অগ্রযাত্রা। তাঁর অভিষেকের পর বাংলাদেশ খেলেছে ৪০ টেস্ট, এর মধ্যে ৩৩টিতেই ছিলেন তিনি। ৩০.৬৬ গড়ে করেছেন ১৮০৯ রান। ক্রিকেটের তিন সংস্করণেই তাঁর সাম্প্রতিক ফর্মটাও খারাপ নয়। টেকনিক, ফিটনেস, অভিজ্ঞতায় এই মুহূর্তে বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে বিবেচনা করা হয় তাঁকে। কিন্তু এত প্রশংসার মাঝেও একটা তির্যক প্রশ্ন, টেস্টে মাহমুদউল্লাহর ইনিংস কেন তিন অঙ্ক স্পর্শ করছে না?

প্রথম সেঞ্চুরির পর মাহমুদউল্লাহ ফিফটি করেছেন ১১টি। এর মধ্যে ষাটের ঘরে গিয়ে আউট হয়েছেন পাঁচবার, পঞ্চাশের ঘরে চারবার। সেঞ্চুরিবিহীন এই সময়ে মাহমুদউল্লাহর সর্বোচ্চ রান ৭৬।

পিএসএলে বল হাতে জ্বলে উঠলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (ভিডিওতে দেখুন উইকেটগুলো)

 

কোয়েটা গ্লাডিয়েটর্সের হয়ে বৃহস্পতিবার মাঠে নেমেছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বল হাতে জ্বলে উঠার পর ব্যাট হাতেও রান করেই ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন এই বাংলাদেশি।

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে নেমে মাহমুদউল্লাহর উপর আস্থা রেখে তাকে দিয়ে টানা চার ওভার বল করান সরফরাজ। অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দিতে ভুল করেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। চার ওভার বল করে ২১ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩টি উইকেট। তার শিকারে পরিণত করেন কুমার সঙ্গাকারা, বাবর আজম ও শোয়েব মালিকের মতো ব্যাটসম্যানদের।

এর আগেও তিন ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। বল ও ব্যাট হাতে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে করেছিলেন অপরাজিত ২৯ রান। পরের দুই ম্যাচে ব্যাট করার সুযোগ পাননি। তবে বল হাতে দ্বিতীয় ম্যাচে নিয়েছিলেন ১ উইকেট। আর তৃতীয় ম্যাচে ২৩ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি।

আজ নিজের চতুর্থ ম্যাচে অবশ্য পাকিস্তান সুপার লিগে এ পর্যন্ত তার সেরা বোলিংটা করে দেখালেন বাংলাদেশি এই তারকা। বোলিংয়ের পর ব্যাট হাতেও ৪ বলে ৮ রানে অপরাজিত থাকেন এই টাইগার।

তার এই পারফরম্যান্সে তার দল ৬ উকেটের সহক জয় তুলে নেয়। ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

পিএসএলে মাহমুদউল্লাহর মুখোমুখি তামিম

প্রথমবারের মতো পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের দুই নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শুক্রবার তামিমের পেশোয়ার জালমি ও রিয়াদের কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের মধ্যকার ম্যাচটি শুরু হবে শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী বিকাল ৫.৩০ মিনিটে।

গত আসরে পেশোয়ার জালমির হয়ে ৬ ম্যাচে অংশ নিয়ে তিন অর্ধশতকের দেখা পাওয়া তামিম ইকবালের জন্য চলতি আসরে এটিই হতে যাচ্ছে প্রথম ম্যাচ। অন্যদিকে, পিএসএলে প্রথমবারের মতো ডাক পাওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ইতোমধ্যে টুর্নামেন্টে অভিষেক ঘটেছে।

অভিষেকে ব্যাট হাতে আলো ছড়ানো রিয়াদ পেশোয়ার জালমির বিপক্ষেও ভরসার প্রতীক হয়ে থাকবেন কোয়েটার জন্য। চলমান পিএসএলের দ্বিতীয় আসরে সমান দুই ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুইয়ে অবস্থান দল দু’টোর। যার ফলে, চির-প্রতিদ্বন্দ্বী দু’দলের লড়াইটি হয়ে উঠেছে কে-অপরকে ছাড়িয়ে যাওয়ার। যা বাড়তি আকর্ষণ তৈরী করছে দর্শকদের মাঝে।

পেশোয়ার জালমিঃ মোহাম্মদ হাফিজ, তামিম ইকবাল, কামরান আকমল †, মরগান, শহিদ আফ্রিদি, শোয়েব মাকসুদ, ড্যারেন স্যামি,  জর্ডান এবং ওয়াহাব রিয়াজ।

কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসঃ আসাদ শফিক, আহমেদ শেহজাদ, কেভিন পিটারসেন, রিলি রুশো, সরফরাজ আহমেদ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ নওয়াজ, থিসারা পেরেরা, আনোয়ার আলী, হাসান খান এবং উমর গুল।

ভারত থেকেই পিএসএলে যোগ দিচ্ছেন সাকিব-তামিম-রিয়াদ

ভারত সফর শেষ করে বাকী ক্রিকেটাররা দেশে ফিরলেও বাংলাদেশের ফ্লাইট ধরেননি সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেট লীগ- পিএসএলে খেলার উদ্দেশ্যে শীঘ্রই তাদের উড়াল দিতে হবে আয়োজক দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে। ভারত থেকেই তাই পিএসএলের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ এই তিন ক্রিকেটার।

দুই ঘনিষ্ঠ বন্ধু সাকিব ও তামিম এবার একই দলের হয়ে পিএসএল মাতাবেন। নিলামের সময় দুই তারকা ক্রিকেটারকেই দলভুক্ত করে নিজেদের শক্তিমত্তা বাড়িয়েছে পেশোয়ার জালমি। এদিকে পিএসএল-এর বিগত আসরে সাকিব-তামিমের খেলার অভিজ্ঞতা থাকলেও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের এটিই প্রথম আসর। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার টুর্নামেন্টটিতে খেলবেন কোয়েট্টা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে।

তবে সাকিব-তামিম-রিয়াদের কেউই পিএসএলের বাকী সবগুলো ম্যাচ খেলতে পারবেন না। শ্রীলংকা সফরের জন্য এই মাসের শেষেই দ্বীপদেশটিতে উড়াল দিবে টাইগাররা। সেজন্য পিএসএল অসমাপ্ত রেখেই দেশে ফিরে আসতে হবে এই তিন ক্রিকেটারকে।

২০১৫ সালের বর্ষসেরা ক্রিকেটার রিয়াদ

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল ২০১৫ সালে স্বপ্নের মতো একটি বছর কাটিয়েছে। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের কোয়াটার ফাইনালে খেলার পাশাপাশি ঘরের মাটিতে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়ের কৃতিত্ব দেখিয়েছে। টাইগারদের দূর্দান্ত এসকল অর্জনের পিছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও উদীয়মান পেসার মুস্তাফিজুর রহমান।

এরই ফলপ্রসূ হিসেবে বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতির কুল-বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ডে ২০১৫ সালের বর্ষসেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন জাতীয় দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অন্যদিকে কাটার-মাস্টারের ভাগ্যে জুটেছে ২০১৫ সালের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের তকমা। এ অর্জনের পথে মুস্তাফিজ আবার পিছনে ফেলেছেন দুই সতীর্থ সৌম্য সরকার ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে।

ক্রিকেট মাঠে নিয়মিত পারফর্ম করার ফল হিসেবে আজ রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে রিয়াদ-মুস্তাফিজদের হাতে তুলে বিএসপিএ-এর পক্ষ থেকে তুলে দেওয়া হ্য পুরষ্কার। ক্রিকেটার ছাড়াও আরো অনেকে পুরষ্কৃত হন বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতির কুল-বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ডে।

কুল-বিএসপিএ ২০১৫ সালের  পুরস্কার প্রাপ্তদের তালিকা-
 

বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদঃ মোস্তাফিজুর রহমান, সেরা ক্রিকেটারঃ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সেরা দাবাড়ুঃ মোহাম্মদ ফাহাদ রহমান, সেরা আর্চারঃ তামিমুল ইসলাম, উদীয়মান ক্রীড়াবিদঃ সারোয়ার জামান নিপু (ফুটবল), সেরা সংগঠকঃ ইউসুফ আলী, বর্ষসেরা কোচঃ সৈয়দ গোলাম জিলানী (ফুটবল), বর্ষসেরা স্পন্সর প্রতিষ্ঠানঃ ম্যাক্স গ্রুপ, বিশেষ সম্মাননাঃ আমিনুল হক মনি।

পিএসএলে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে খেলবেন মাহমুদউল্লাহ

পিএসএলের দ্বিতীয় আসরে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের জার্সি গায়ে মাঠ মাতাবেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অস্ট্রেলিয়ার ব্র্যাড হজের বদলি হিসেবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে বেছে নিয়েছে দলটি। পারিবারিক কারণে অস্ট্রেলিয়ার ব্র্যাড হজ এবার খেলছেন না বলে জানিয়েছে কোয়েটা।

দ্বিতীয়বারের মতো মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বিদেশের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-২০ লিগ খেলতে যাচ্ছেন। ২০১৫ সালে তার নাম প্লেয়ার্স ড্রাফটে থাকলেও কোনো দল পাননি।

ফেব্রুয়ারির ৯ তারিখ থেকে শুরু হবে এবারের পিএসএল। একই দিন বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে ভারতের। হায়দেরাবাদে ভারত সফরের একমাত্র টেস্টের জন্য ব্যস্ত থাকবেন রিয়াদ। তাই পিএসেলের শুরুতে কোয়েটা পাবে না তাকে। একই কারণে সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালও খেলবেন পিএসএলের প্রথম দিকের মাচগুলো।

নিজেদের টুইটার থেকে এক পোস্টে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স লিখে, “বাংলাদেশের কার্যকরী অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে ব্র্যাড হজের বদলি ঘোষণা করতে পেরে আনন্দিত।”

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি জয়ের সুযোগ দেখছেন রিয়াদ

ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ। টি-টোয়েন্টি সিরিজেও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হার দিয়ে শুরু করেছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের স্বপ্ন দেখছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। দলের অন্যতম ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতে, ভুলগুলো শোধরাতে পারলেই ‘সুযোগ’ রয়েছে বাংলাদেশের

শুক্রবার মাউন্ট মাউঙ্গানুইতে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড। ম্যাচ জিতলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নেবে কেন উইলিয়ামসনের দল। হারলে সিরিজ জয়ের সুযোগ থাকবে বাংলাদেশের।

দ্বিতীয় ম্যাচে জয় নিয়েই ভাবছেন রিয়াদ। ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘আমরা যদি পুরানো ম্যাচগুলোতে হওয়া ছোটোখাটো ভুলগুলো শোধরাতে পারি তাহলে এই ম্যাচে জয় পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। আমি মনে করি আমরা দল হিসেবে প্রতিনিয়ত উন্নত করছি।’

গেল বছরে ঘরের মাঠে দারুণ সময় কাটিয়েছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু বছরের শেষে বিদেশের মাটিতেই যেন খেই হারিয়ে ফেলেছে তারা। রিয়াদও মানছেন, বিদেশের মাটিতে খেলাটা বরাবরই তাদের জন্য চ্যালেঞ্জের।

বলেন, ‘ঘরের চেয়ে বিদেশের মাটিতে খেলা সবসময়ই কঠিন চ্যালেঞ্জ।’  দ্বিতীয় ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় সকাল আটটায় শুরু হবে।

সূত্র: ক্রিকইনফো