Tag Archives: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিল)

আইপিএলের সবচেয়ে দামি ক্রিকেটার খেলতেই পারবেন না!

বেন স্টোকসের জন্য এবারের আইপিএল নিলামে ১৪.৫ কোটি রুপি খরচ করেছে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টস। সম্প্রতি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বেন স্টোকসের পারফরম্যান্স বেশ নজরকাড়া। ভারতের বিরুদ্ধেও টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের এই ক্রিকেটারের পারফরম্যান্স প্রশংসিত হয়েছে।

স্বাভাবিকভাবেই বেন স্টোকসকে ঘিরে এবার পুনের প্রত্যাশাটা অনেকটাই। গতবারই আইপিএল-এ আত্মপ্রকাশ করেছে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টস। কিন্তু, ধোনি সমৃদ্ধ সেই দলের পারফরম্যান্স ছিল হতাশাব্যাঞ্জক। কিন্তু, পুনে দলের সূত্রে যা খবর ইতিমধ্যেই ইংরাজ এই ক্রিকেটারকে নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়েছে। বেন স্টোকস আদৌ পুরো আইপিএল খেলতে পারবেন কি না তাতে সন্দেহ দানা বেঁধেছে।

পুনের দলের সূত্রে যা খবর তাতে, ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রস্তুতির জন্য মে মাসে জোড়া সিরিজ আয়োজন করছে ইসিবি। আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলার পরই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলবে ইংল্যান্ড। মে মাস মানেই আইপিএল তখন মাঝপথে।
ছয় সপ্তাহব্যাপী আইপিএলে বেন স্টোকসকে পুরো সময়টা পাওয়া নিয়ে সিদূরে এখন মেঘ দেখছে পুণে।
শুধু স্টোকসই নন। কেকেআর-ও একই সমস্যায়। কারণ, তারা এবার দলে নিয়েছে ইংল্যান্ডের জাতীয় দলের ক্রিকেটার ক্রিস ওকস-কে। মে মাসে ইংল্যান্ডের জোড়া সিরিজের জন্য ওকসকেও না আইপিএল-এর মাঝপথে ছেড়ে দিতে হয়? এই নিয়ে এখন চিন্তিত নাইট কর্তৃপক্ষ।
জানা গিয়েছে, বেন স্টোকস, ক্রিস ওকস এবং জোস বাটলার— এই তিন তারকা ক্রিকেটার ১৪ মে সম্ভবত জাতীয় দলের খেলার জন্য দেশে ফিরে যাবেন। তার আগে ১ মে ইয়ন মর্গ্যান ও জেসন রে-দেরও দেশে ফেরার কথা।

তবে, আরসিবি-র টাইমাল মিলস ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ক্রিস জর্ডনকে নিয়ে তেমন সমস্যা হবে না। জানা গেছে, এই দুই ইংরেজ ক্রিকেটারকেই আইপিএল-এ পুরো সময়টাই পাওয়া যাবে।

এবারের নিলামের ‘মাশরাফি’ রশিদ

আইপিএলে দল পেয়ে রোমাঞ্চিত রশিদ খান।গত সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ সফরে নিজেকে দারুণভাবে চিনিয়েছিলেন আফগানিস্তানের রশিদ খান। তিন ওয়ানডেতে ৭ উইকেট নেওয়া রশিদ বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ভালোই ভুগিয়েছিলেন। দেশের হয়ে ধারাবাহিকভাবে ভালো করে যাওয়ার ফল পেলেন দারুণভাবেই। তাঁর চেয়েও অনেক নামকরা তারকাদের পেছনে ফেলে ৪ কোটি রুপিতে আইপিএলে নাম লেখালেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদে। চা-র কোটি রুপি!
ওয়ানডে সিরিজ খেলতে জিম্বাবুয়েতে থাকা রশিদ কি ভেবেছিলেন এমন কিছু! আজ থেকে আট বছর আগে ঠিক এমনই অবস্থা হয়েছিল বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার। অপ্রত্যাশিতভাবেই রশিদের মতোই সেদিন ৬ লাখ ডলারে মাশরাফিকে কিনেছিল কেকেআর। বাইরের পৃথিবীর চমকে গিয়েছিল, মাশরাফিকে এত টাকায় কেনায়। মাশরাফিরও শুরুটা হয়েছিল খুবই কম ভিত্তিমূল্য থেকে। তার পর কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব আর কেকেআরের টানাটানিতে দর চলে যায় আকাশে। যে লড়াই প্রীতি জিনতা বনাম জুহি চাওলার লড়াই হিসেবেও খ্যাতি পেয়েছিল। দুজনই যে নিজ নিজ দলের হয়ে সেদিন নিলামে ছিলেন।
এবার রশিদকে নিয়েও দুই দলের টানাটানিতে দাম চলে গেল ৪ কোটি রুপিতে। অথচ আইপিএল নিলামে নাম থাকলেও দল পাবেন—এমন ভাবনাও নাকি মাথায় ছিল না রশিদের। বলেছেন, ‘আমি খুব অবাক হয়েছি, খুশি হয়েছি, রোমাঞ্চিতও হয়েছি। খুব তাড়াতাড়িই ঘটে গেল সবকিছু। ব্যাপারটা এখনো বিশ্বাস করে উঠতে পারছি না।’

ক্রিকেট খেলতে তিনি এখন পৃথিবীর অন্য প্রান্তে। নিলাম শুরু হওয়ার সময়ও ছিলেন গভীর ঘুমে। রশিদ বলেছেন, ‘আমার বাবা-মা তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে নিলাম দেখতে বসেছিলেন। আমি তখন ঘুমিয়ে ছিলাম। তাঁরা তখন আমাকে ঘুম থেকে ডেকে তোলেন আর টিভি দেখতে বলেন। কারণ এরপর আমার নিলামই শুরু হচ্ছিল।’
আইপিএলের দরজা খুলে গেলেও রশিদ এখন অপেক্ষায় আরও বড় কিছুর। এই মুহূর্তে আফগানিস্তানের টেস্ট মর্যাদাই তাঁর কাছে সবচেয়ে বেশি প্রার্থিত, ‘আমরা টেস্ট খেলতে চাই। এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমরা সবাই খুব পরিশ্রম করছি সুযোগটা পাওয়ার জন্য। আমরা যদি টেস্ট খেলার সুযোগ পাই, তাহলে ভাবতেও পারবেন না আমরা কতটা খুশি হব।’ সূত্র: ক্রিকইনফো।

আইপিএলের শুরুতে থাকছেন না সাকিব-মুস্তাফিজ?

জনপ্রিয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দশম আসরের পর্দা উঠতে যাচ্ছে ৫ই এপ্রিল। বরাবরের মতো, এবারের আসরেও খেলার সুযোগ পাচ্ছেন দুই বাংলাদেশী ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও কাটার-মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। আসন্ন আইপিএলে ইতোমধ্যে সাকিব-মুস্তাফিজ দল পেলেও টুর্নামেন্টের শুরু থেকে তাদের খেলা নিয়ে রয়েছে শঙ্কা।

বিগত আসরগুলরমতো আসন্ন আইপিএলেও শাহরুখ খানের কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলবেন সাকিব। অন্যদিকে, অভিষেক আইপিএলে মুস্তাফিজ সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে শিরোপা জিতানোর পিছনে কান্ডারির ভূমিকা পালন করায় আইপিএলের দশম আসরেও তাকে স্কোয়াডে রেখে দিয়েছে দলটি।

ভিভো আইপিএলের দশম আসর শুরু হওয়ার সময় বাংলাদেশ জাতীয় দলের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ থাকায়  আইপিএলের শুরুতে এ দুই ক্রিকেটারকে পাওয়া দুষ্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের জন্য। উল্লেখ্য, ৭ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া দ্বিপাক্ষিক সিরিজে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের বিপক্ষে দু’টি টেস্ট, দু’টি টি-টোয়েন্টি এবং তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলবে সফরকারী বাংলাদেশ। টেস্ট সিরিজ দিয়ে শুরু হওয়া টাইগারদের এ সফরটি শেষ হবে ৮ এপ্রিল টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। এরপরই মূলত সাকিব-মুস্তাফিজ সুযোগ পাবেন আইপিএলে অংশ নেওয়ার।

তাই সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমান যে আসন্ন আইপিএলের শুরুর দিকের কিছু ম্যাচে অংশ নিতে পারছেন না তা এক প্রকার নিশ্চিত।

আইপিএলের প্রথম দিনেই মাঠে নামছে মুস্তাফিজের হায়দরাবাদ

এপ্রিলের ৫ তারিখে পর্দা উঠছে আইপিএলের দশম আসরের। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ এবং রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর মধ্যকার ম্যাচ দিয়েই এবার শুরু হতে যাচ্ছে আইপিএল। প্রথম ম্যাচেই কোহলির দলের মুখোমুখি  হচ্ছে গেলবারের চ্যাম্পিয়ন মুস্তাফিজের হায়দরাবাদ। আইপিএলের এ আসরের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি।

বুধবার আইপিএলের দশম আসরের চূড়ান্ত সূচি প্রকাশ করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ম্যাচ দিয়ে শুরু হয়ে ১৪মে দিল্লি ডেয়ারডেবিলস ও রয়েল চ্যালেঞ্জারস`র ম্যাচ দিয়ে গ্রুপ পর্বের সমাপ্তি ঘটবে। একদিন বিরতির পর ১৬ মে ব্যাঙ্গালুরুর মাঠে শুরু হবে নকঅাউট পর্ব। ২১মে হায়দরাবাদে ফাইনাল খেলার মধ্য দিয়ে শেষ হবে আইপিএলের এবারকার আসরে।
আইপিএলে নিজের প্রথম আসরেই অসাধারণ পারফরম্যান্স করে দলকে চ্যাম্পিয়ন করার সুবাদে এবারও মুস্তাফিজকে নিজেদের দলে রেখে দিয়েছে সানরাইজার্স। আইপিএলের সেরা উদীয়মান ক্রিকেটারের পুরস্কারও জিতেছিলেন সাতক্ষীরার এই ক্রিকেটার।

অন্যদিকে মুস্তাফিজের মত বাংলাদেশ তথা বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকেও ধরে রেখেছে শাহরুখ খানের কলকাতা নাইট রাইডার্স। আইপিএলের দুবার চ্যাম্পিয়ন কলকাতার হয়ে ব্যাটে এবং বলে অসাধারণ পারফর্ম করে জায়গা ধরে রেখছেন সাকিব।

আইপিএলের নিলামে থাকছেন এনামুল

একসময় বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন। ২০১৫ বিশ্বকাপের সময় ইনজুরিতে পড়ার পর আর জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নামা হয়নি বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়ের। কিন্তু তবুও দমে থাকেননি তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেট ভালো খেলছেন। এবার জায়গা করে নিলেন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) নিলামেও।

মঙ্গলবার শুরু হতে যাওয়া আইপিএলের নিলামে ৭৯৯ ক্রিকেটারের ভেতর রয়েছেন এনামুল হক বিজয়ও। তার প্রাথমিক মূল্য রাখা হয়েছে ৩০ লক্ষ রুপী। ৭৯৯ ক্রিকেটারের ভেতর রয়েছে ১২২ জন ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা যাদের ভেতরেও রয়েছেন এনামুল। এখন দেখার বিষয় আগামী ২০ তারিখ ব্যাঙ্গালুরুতে হওয়া আইপিএলের নিলামে কোন দল পান তিনি।

এনামুল ছাড়াও আরো পাঁচজন ক্রিকেটার রয়েছেন আইপিএলের নিলামে। তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, তাসকিন আহমেদ এবং মেহেদী হাসান মিরাজ। যাদের সবারই প্রাথমিক মূল্য ধরা হয়েছে ৩০ লক্ষ রুপী। আইপিএলের দশম সংস্করণ শুরু কবে এপ্রিল মাসে।

আইপিএল খেলে কত পান সাকিব–মোস্তাফিজ?

ক্রিকেটেও এখন টাকার ছড়াছড়ি। ক্রিকেটারদের ‘ধনী’ করে দেওয়ার কাজটা করছে বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতাগুলো। ক্রিস গেইল, কেভিন পিটারসেনরা প্রায় বছর জুড়েই খেলে যাচ্ছেন বিভিন্ন দেশের টি-টোয়েন্টিতে। মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলিরা উঠে আসছেন ফোর্বসের মতো সাময়িকীর পাতায়। যেখানে কেবল ধনকুবেরদের নামই বেশি করে আসে। তাঁরা থাকছেন সবচেয়ে বেশি আয় করা খেলোয়াড়দের তালিকায়। আইপিএল খেলে কোটি টাকার বেশি আয় করছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানও।
গত মৌসুমের আইপিএল মাতিয়ে আসা মোস্তাফিজের নাম এবারও আছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের তালিকায়। দলটির হয়ে পুরো মৌসুম খেললে বাংলাদেশের বাঁ হাতি এই পেসার পাবেন ১ কোটি ৪০ লাখ রুপি। বাংলাদেশের মুদ্রায় এটা প্রায় ১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। কলকাতার হয়ে পাঁচ মৌসুম খেলা সাকিব আল হাসানের অঙ্কটা এর দ্বিগুণ। পুরো মৌসুম খেললে এবার তিনি পাবেন ২ কোটি ৮০ লাখ রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।
মোস্তাফিজ: আইপিএলের পুরো মৌসুম খেললে হয়ে যাবেন কোটিপতি। ফাইল ছবিএবারের আইপিএলে সাকিব-মোস্তাফিজ পুরো মৌসুম খেলতে পারবেন কিনা তা নিয়ে অবশ্য সংশয় আছে। আইপিএল শুরু হবে এপ্রিলের ৫ তারিখ। এর আগে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে বাংলাদেশ দল। এখনো চূড়ান্ত সূচি হয়নি। তবে প্রায় দেড় মাসের সফরের শেষ দিনগুলো এপ্রিলের মধ্যে পড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে আইপিএল থেকে এবার পুরো টাকা নাও পেতে পারেন তাঁরা। দলে যোগ দিয়ে পুরো মৌসুম খেলার মতো ফ্রি থাকলেই শুধু পুরো টাকা পান আইপিএলের খেলোয়াড়রা। দলে যোগ দেওয়ার পর চোট থাকলেও পুরো টাকাই পাবেন তাঁরা। আর জাতীয় দলে খেলতে গিয়ে অর্ধেক মৌসুম মিস করলে পাবেন অর্ধেক টাকা। সূত্র: আইপিএল ওয়েবসাইট।

আইপিএলের নিলামে ৬ বাংলাদেশি ক্রিকেটার

প্রায় সব ক্রিকেট খেলুড়ে দেশেই এখন ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট হয়। তবে আইপিএলই এর মধ্যে সবচেয়ে জমজমাট। ভারতের ঘরোয়া এই টুর্নামেন্টে যেন তারার মেলা বসে। সেই মেলায় কয়েক মৌসুম ধরেই নিয়মিত বাংলাদেশের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গত মৌসুমে আইপিএল মাতিয়েছেন তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এবারের আইপিএলে সাকিব যথারীতি তাঁদের আগের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সেই খেলবেন। মুস্তাফিজকেও রেখে দিয়েছে তাঁর গত মৌসুমের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আর চলতি মৌসুমের টুর্নামেন্টের জন্য খেলোয়াড়দের নিলামে জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশের আরও ছয় ক্রিকেটার।

এই ছয়জন হলেন: তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির রহমান, এনামুল হক (বিজয়), তাসকিন আহমেদ ও মেহেদি হাসান মিরাজ। প্রত্যেকেরই ভিত্তি মূল্য ৩০ লাখ রুপি।
দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট বিপিএলের গত আসরে বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা ভালো পারফর্ম করেছেন। বিপিএলের গত মৌসুমটা এক কথায় দুর্দান্ত কেটেছে তামিমের। গত মৌসুমে চিটাগং ভাইকিংসকে নেতৃত্বও দিয়েছেন বাঁহাতি এই ওপেনার। এলিমিনেটরে রাজশাহী কিংসের কাছে হেরে গিয়েছিল তাঁর দল। তাই ১৩টির বেশি ম্যাচ খেলা হয়নি। এই ১৩ ম্যাচেই ৪৭৬ রান নিয়ে আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন তামিম।
সাম্প্রতিক ফর্মটা ভালো না গেলেও তামিম বেশ কিছুদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও ধারাবাহিক হয়ে উঠেছেন। এক দফা পুনে ওয়ারিয়র্সের হয়ে আইপিএলে খেলা তামিমকে নিয়ে আগ্রহ থাকতে পারে আইপিএলের দলগুলোর।
গত মৌসুমের বিপিএলে বল হাতে ভালো করেছেন বাংলাদেশের দুই তরুণ তাসকিন ও মিরাজ। চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে ১১ ম্যাচ খেলে ১৫ উইকেট নিয়েছেন পেসার তাসকিন। আর রাজশাহী কিংসের অফ স্পিনার মেহেদীর উইকেট ছিল ১৫ ম্যাচে ১২টি। দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে অসাধারণ বোলিং করা মিরাজ আর অনেক দিন ধরেই বল হাতে ধারাবাহিক পারফর্ম করে যাওয়া তাসকিনও আছেন আইপিএলের নিলামে।
নিলামে আছেন মারকাটারি ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিতি পেয়ে যাওয়া সাব্বির আর ঠান্ডা মাথার ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ। অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশের জাতীয় দলের বাইরে থাকা ওপেনার এনামুলও আছেন নিলামে। তাঁরা তিনজনই সর্বশেষ বিপিএলে ব্যাট হাতে ছিলেন উজ্জ্বল। ১৪ ম্যাচে ৩৯৬ রান নিয়ে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ৩৭৭ রান নিয়ে এর পরেই ছিলেন সাব্বির। ১৩ ম্যাচ খেলে ২৫০ রান করেছিলেন এনামুল।
বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কদিন আগে ভারত সফরও করল। ক্রিকেটারদের সম্পর্কে এ সময়ে ভারতীয় মিডিয়ায় বেশ লেখালেখি হয়েছে। এমনিতে আইপিএলে বাংলাদেশি ক্রিকেটারের সংখ্যা খুব কম হলেও এবার প্রতিনিধি বাড়ার সম্ভাবনা আছে। যদিও শ্রীলঙ্কা সফরের কারণে বাংলাদেশের বেশির ভাগ তারকা ক্রিকেটার জাতীয় দলে ব্যস্ত থাকবেন। এদিক দিয়ে দেখলে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের নাও কিনতে পারে দলগুলো।

মুস্তাফিজকে রেখে দিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ, মরগ্যান বাদ

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর দশম আসর উপলক্ষে ক্রিকেটার বাছাইয়ের প্রক্রিয়া চালাচ্ছে দলগুলো। ক্রিকেটার ছাঁটাইয়ের সময়সীমা শেষে গত আইপিলে অভিষিক্ত ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমানকে রেখে দিয়েছে তার দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

যদিও ইংল্যান্ডের ওয়ানডে অধিনায়ক এউইন মরগ্যান বাদ পড়েছেন দলটি থেকে। এ ছাড়া কলকাতা রেখে দিয়েছে বিশ্বের অন্যতম সেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে।
আইপিএলে অভিষেকেই চমক দেখান বাংলাদেশের তরুণ পেস সেনসেশন মুস্তাফিজুর রহমান। দুর্দান্ত বোলিং আর কাটারের ভেলকিতে জয় করে নেন সবার হৃদয়। ১৬ ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়ে সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার নির্বাচিত হন তিনি। গড় ছিল ২৪.৭৬। আর সেরা বোলিং ফিগার ১৬ রানে ৩ উইকেট। এ ছাড়া ফেভারিট না হয়েও তার দল হায়দরাবাদ শিরোপা জিতে নেয়। দেশ-বিদেশের অসংখ্য দর্শকের ভালোবাসার পাশাপাশি ‘দ্য ফিজ’, ‘ম্যাজিক্যাল মুস্তাফিজ’ সহ বিভিন্ন উপাধি পান তিনি। এমন এক প্রতিভাকে যে সানরাইজার্স ছেড়ে দেবে না সেটা আগেই বোঝা গিয়েছিল।

দলটি থেকে মরগ্যান ছাড়াও বাদ পড়েছেন আশীষ রেড্ডি ও টি সুমন। তবে আইপিএল মাতানো কাটার মাস্টারকে রেখে দিতে ভুল করেনি সানরাইজার্স। আগামী এপ্রিলে বসতে যাচ্ছে আগামী আইপিএল। মিলিয়ন ডলারের এই টুর্নামেন্টের দশম আসর হতে যাচ্ছে এটি।

অনিশ্চয়তায় আইপিএল!

সুপ্রিমকোর্ট কর্তৃক নিয়োগকৃত কমিশন লোধা কমিটির সাথে ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) দ্বন্দ্বের ফলে অনিশ্চিত হয়ে গেছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিল)। কারণ, বোর্ডের যাবতীয় কর্মকাণ্ডের জবাবদিহি করতে হয় এই কমিশনের কাছে। এ কারণেই তৈরি হয়েছে দ্বন্দ্বের। আর এই দ্বন্দ্বের জের ধরেই আইপিল পড়েছে অনিশ্চয়তায়।

নিউজিল্যান্ড সিরিজ চলাকালে প্রায় বন্ধ হয়ে যেতে বসেছিলো সিরিজ। লোধা কমিটির পক্ষ থেকে বোর্ডের খরচের হিসেব চাওয়াতে বোর্ড প্রধান অনুরাগ ঠাকুর ক্ষেপে যান। পরে দুপক্ষ মিলে সিদ্ধান্ত নেয় সিরিজ চলবে। এদিকে, আসন্ন ইংল্যান্ড সিরিজে অতিথি দল ইংল্যান্ডের কোন খরচ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বহন করতে পারবে না বলে লিখিতভাবে জানিয়ে দিয়েছে। তারা তাতে রাজিও হয়েছে।

এরই মধ্যে বিসিসিআই সেক্রেটারি অজয় শিরকে দিলেন এই অবাক হওয়া মতো তথ্য। ভারতের একটি সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাৎকারে শিরকে আইপিএল নিয়ে অনিশ্চয়তা প্রকাশ করেছে। আইপিএলের সময় ঘনিয়ে আসলেও এখন পর্যন্ত লোধা কমিটি থেকে এ বিষয়ে কোণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন বোর্ড সেক্রেটারি।

অজয় শিরকে বলেন, ‘আইপিএল ২০১৭ এখন অনিশ্চয়তায় আছে। আমাদের কোন ধারণা নেই আসলে কি হতে যাচ্ছে। কিভাবে এটা হবে আমরা আদৌ জানিনা। আমরা এরই মধ্যে কমিটির কাছে সব খরচ সহ বিস্তারিত পাঠিয়েছি। বর একটা তালিকা তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তারা কণ সাড়া দিচ্ছে না। অথচ আমাদের হাতে সময় নেই একদমই।’