Tag Archives: আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

‘অরিজিন ক্রিকেট কাপ’ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ক্লাব

অস্ট্রেলিয়ায় ‘অরিজিন ক্রিকেট কাপ’ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ক্লাব ‘পাওয়ার সোর্স’।

রোববার সিডনিতে অনুষ্ঠিত ব্ল্যাকটাউনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে অনুষ্ঠিত দিবা-রাত্রির ফাইনালে তিন বারের ফাইনালিস্ট প্রবাসী আফগানিস্তানিদের দল হাজারা স্টার্সকে সাত উইকেটে পরাজিত করে পাওয়ার সোর্স।

সিডনির গ্রুপ পর্যায়ে একের পর এক জয়ে মাল্টি কালচারাল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠে আসে ‘পাওয়ার সোর্স’ ক্রিকেট ক্লাব।
মূলত ক্রিকেটের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ার মাল্টিকালচারাল কমিউনিটির মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে ২০১৪ সাল থেকে আয়োজন করা হচ্ছে অরিজিন ক্রিকেট কাপ। পাশাপাশি মাঠ পর্যায় থেকে বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের ক্রিকেটার খোঁজার কাজও করছে অরিজিন।

দিবারাত্রির ফাইনাল ম্যাচে টসে জিতে, ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় গতবারের চ্যাম্পিয়ন হাজারা স্টার্স। প্রথম ওভারেই হ্যাটট্রিক করেন সিলেটের হয়ে প্রথম বিভাগে খেলা নাসির হোসাইন। তার ১২ রানে ৫ উইকেট শিকারের দিনে ৭৭ রানে থেমে যায় হাজারা স্টার্সের ব্যাটিং রথ।

বিপরীতে মাত্র তিন উইকেট খুঁইয়ে, লক্ষ্যে পৌঁছে ‘পাওয়ার সোর্স’। ১২ ওভারে ৮১ রান সংগ্রহে জয় নিশ্চিত করে তারা। দলের হয়ে রিয়াদ ২২ আর মাশরুর সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন। মাল্টি কালচারাল ক্রিকেটের এই টুর্নামেন্টে এবারই প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে বাংলাদেশি কোন ক্লাব। আনন্দময় এ মুহূর্ত ছুঁয়ে যায় স্টেডিয়ামে উপস্থিত সবাইকে।

‘জয়ের পেছনে টিমস্পিরিটই মূলমন্ত্র’ বললেন, জয়ী দলের অধিনায়ক মোদাচ্ছের রাব্বানি। তবে, নাসির হোসাইনের অনবদ্য ইনিংসের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন তিনি। ছোটখাটো দুর্বলতা কাটিয়ে, আগামী বছরও শিরোপা ধরে রাখার প্রত্যয় মোদাচ্ছের রাব্বানির।
যোগ্য দল হিসেবেই পাওয়ার সোর্সের প্রশংসা করলেন, রানার্স আপ দলের অধিনায়ক মূসা আলী। বললেন, প্রথম ওভারেই, খেলার মোড় ঘুরিয়ে দেন নাসির হোসাইন। অরিজিন ক্রিকেট টুর্নামেন্টকে আরো বড় পরিসরে পৌঁছে দিতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের সহায়তাও চান তিনি।

লীগ পর্যায়ের ম্যাচেও পাওয়ার সোর্সের কাছে পরাজিত হয়েছিল হাজারা স্টার্স।

১৮টি দলের অংশগ্রহণে অরিজিন ক্রিকেট টুর্নামেন্টের এটি ছিল তৃতীয় আসর। অস্ট্রেলিয়ার মত মাল্টি কালচারাল সোসাইটিতে এ ধরণের আয়োজনকে ‘সাধুবাদ’ জানান আমন্ত্রিত অতিথিরা।

অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ কনস্যুল জেনারেল অ্যান্থনি কুরি তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, “এটা ভালো লাগছে যে বাংলাদেশ জয়ী হয়েছে। আশা করি, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতরা আরো বেশি সংখ্যায় অংশ নিবে খেলাধুলায়।”
অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে আরও ছিলেন, অরিজিন ক্রিকেটের ফাউন্ডার মাহিন আবেদীন, বঙ্গবন্ধু কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি শেখ শামীমুল হক, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব কামিল খান, কিংসগ্রোভ স্পোর্টস অ্যাকাডেমির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হ্যারি সোলোমন এবং এবিএসসিএ এর চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হবে, এ টুর্নামেন্টের অ্যাওয়ার্ড নাইট। ফাইনালের ম্যান অব দ্য ম্যাচ নাসির হোসাইনের হাতেই উঠছে ‘বেস্ট বোলার অ্যাওয়ার্ড’। টুর্নামেন্টে ১৯ উইকেট নিয়ে বোলারদের শীর্ষেই রয়েছেন তিনি ।

কার্টেসী : বিডি নিউজ ২৪ ডট কম

করাচিতে হোটেলে অগ্নিকাণ্ডে দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটার আহত

পাকিস্তানের করাচি নগরীর রিজেন্ট প্লাজা হোটেলে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে অন্তত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।  তা ছাড়া এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৪৫ জন। আহতদের মধ্যে রয়েছেন দুইজন পাকিস্তানি ক্রিকেটারও। এরা হলেন – অলরাউন্ডার ইয়াসিম মুর্তজা ও লেগ স্পিনার কেরামত আলী।

পাকিস্তানের ঘরোয়া লিগের দল ইউনাইটেড ব্যাংক লিমিটেডের (ইউবিএল) হয়ে খেলেন এ দু’জন ক্রিকেটার। কায়েদ-ই-আজম ট্রফির অষ্টম রাউন্ডে অংশ নিতে ইয়াসিম-মুর্তজাসহ পুরো দলই রিজেন্ট প্লাজা হোটেলের চতুর্থ তলায় অবস্থান করছিল।

রাত সাড়ে তিনটার দিকে লাগা এই ভয়াবহ আগুন থেকে নিজেদের বাঁচাতে গিয়েই পায়ে চোট পান ইয়াসিম ও কেরামত। আগুন লাগার পর হুড়োহুড়িতে পড়ে গিয়ে গোড়ালি হাড় ভেঙে যায় ইয়াসিমের। আর কেরামতের হাত ভেঙ্গে যায়। তবে দলের বাকি ক্রিকেটাররা সুস্থই আছেন।

https://i0.wp.com/img.priyo.com/files/201612/pakistani%20injured%20cricketer.jpeg

ছবি: সংগৃহীত

এ প্রসঙ্গে ইউবিএলের ক্রীড়া বিভাগের প্রধান নাদিম খান বলেন, ‘হোটেলের চতুর্থ তলায় রাত ৩টা ৩০ মিনিটে ক্রিকেটাররা আগুন ও ধোঁয়া আঁচ করতে পেরে জেগে ওঠে। ইয়াসিম আতঙ্কে জানালা দিয়ে লাফ দিলে তার গোড়ালি ভেঙে যায়। কেরামত হাত ভাঙলেও বাকি খেলোয়াড়দের চোট অবশ্য গুরুতর নয়। তাদের নিরাপদ অবস্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। খেলোয়াড়েরা খুব ভয় পেয়েছে।’

আগুন লাগার পর ইউবিএলের খেলোয়াড়রা নাদিম খানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরবর্তীতে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে খেলোয়াড়দের নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যান তিনি। সেই সঙ্গে ক্রীড়া বিভাগের প্রধান পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) নিকট সোমবারের খেলা স্থগিত করার জন্য অনুরোধ জানান। তার অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতেই ইউবিএলের সঙ্গে হাবিব ব্যাংকের এদিনের খেলা স্থগিত করা হয়েছে।

ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডের সময় পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য শোয়েব মাকসুদ, হাম্মাদ আযম ও সাবেক টেস্ট ক্রিকেটার উমর আমিন হোটেল রিজেন্ট প্লাজায় ছিলেন। তবে অগ্নিকাণ্ডে তাদের কোনো ক্ষতি হয়নি। নিরাপদেই হোটেল থেকে বেরিয়ে আসেন তারা।

বিপিএল থেকে সরাসরি ইংল্যান্ড টেস্ট দলে ডওসন

উপমহাদেশের মাটিতে ব্যাট-বল হাতে নিজেকে প্রমাণ করছেন লিয়াম ডওসন। ইংলিশ এই অলরাউন্ডার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলতি আসরে খেলছেন রংপুর রাইডার্সের হয়ে। এই বিপিএল থেকেই ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট খেলতে সরাসরি ভারত যাচ্ছেন ডওসন।

ভারতের বিপক্ষে শেষ দুই টেস্টে ডাক পেয়েছেন ইংল্যান্ডের এই স্পিন বোলিং অলরাউন্ডার। চোটের কবলে পড়া জাফর আনসারির স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। ডওসন ছাড়াও ইংল্যান্ড দলে আরো ডাক পেয়েছেন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান কিটন জেনিংস। গেল মৌসুমে ডিভিশন ওয়ান কাউন্টি ক্রিকেটে ১,৫৪৮ রান করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন ২৪ বছরের জেনিংস।

ছবি: সংগৃহীত

ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে একটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলে ফেললেও সাদা পোশাকে অভিষেক ঘটেনি ইংলিশ অলরাউন্ডার ডওসনের। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে আলোচনায় ছিলেন তিনি। ওই সফরেই টেস্ট দলে তার অন্তর্ভুক্তির কথাই শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা আনসারির কারণে সেটা আর হয়নি। এবার সেই আনসারির পরিবর্তে দলে জায়গা পেলেন ডওসন।

বিপিএলের চলতি আসরে এখন পর্যন্ত দশ ম্যাচ খেলা ডওসনের সংগ্রহ ১০৪ রান। এছাড়াও বাঁ-হাতি এই ইংলিশ স্পিনার ঝুলিতে পুরেছেন পাঁচটি উইকেট।

জানিয়ে রাখা ভাল, পাঁচ ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে রয়েছে স্বাগতিক ভারত। ডিসেম্বরের আট তারিখ মুম্বাইয়ে চতুর্থ টেস্টে মুখোমুখি হবে এদু’দল।

‘বাংলাদেশের সাফল্যকে আমরা রোল মডেল হিসেবে নিয়েছি’

আফগানিস্তান জাতীয় দলে খেলছেন মাত্র এক বছর। কিন্তু এরই মধ্যে তার স্পিন বৈচিত্র্য চোখে পড়েছে ক্রিকেট বিজ্ঞদের। এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে খেলে চার ম্যাচে ছয় উইকেট নিয়েছেন আফগানিস্তানের রশিদ খান।

শুধু রশিদই নন। তার দেশ আফগানিস্তানও ক্রিকেটে বেশ উন্নতি করেছেন। আর বাংলাদেশের ক্রিকেট উন্নতিটাই আফগানিস্তান ক্রিকেটে অনুপ্রেরণার কাজ করছে। এমনটাই জানালেন রশিদ খান।

রশিদ খানের মতে, বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নতি দেখেই তাদের দলও অনুপ্রেরণা পাচ্ছে। বিপিএলে দলের অবস্থান পয়েন্ট তালিকায় সবার নিচে থাকলেও বাংলাদেশ জাতীয় দল নিয়ে তার উচ্ছ্বাস লুকাননি। অনুশীলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান বাংলাদেশ দল নিয়ে তার চিন্তা।

রশিদ বলেন, ‘গেলো কয়েক বছরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের সাফল্য চোখে পড়ার মতো। ক্রিকেটে তাদের উন্নতি এখন অনেক দেশের জন্যই উদাহরণ। বাংলাদেশের সাফল্যকে আমরা রোল মডেল হিসেবে নিয়েছি। সেই ধারাবাহিকতায় আমরাও এগিয়ে যেতে চাই।’

২০০১ সালে আইসিসিতে অন্তর্ভুক্ত হবার পর ২০১৩ সালে সহযোগী সদস্য দেশ হয় আফগানিস্তান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এই অল্প সময়ে তাদের ক্রিকেটীয় দক্ষতা মুগ্ধ করেছে বিশ্বকে। উন্নতির গ্রাফটা ধরে রাখতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাফল্য তাদের অনুপ্রেরণা।

গুগলিটাই মূলত ভালো রশিদের। এমনকি অনেকে তাকে পাকিস্তানের তারকা অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির সাথেও তুলনা করেন। তবে তিনি এমনটা মানেন না। রশিদ বলেন, ‘অনেকে বলেন আমি আফ্রিদির মতো করে বল করি। আসলে আমি তাকে ঐ ভাবে অনুসরণ করি না। তবে, তার বোলিং উপভোগ করি। শহীদ আফ্রিদি, শেন ওয়ার্ন ও অনিল কুম্বলেকে আমার দারুণ লাগে। আর বোলিং ভিন্নতার মাঝে গুগলি ডেলিভারি নিয়ে আমি বেশি কাজ করছি।’

আবারও ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের সম্ভাবনা

আবারও কি জমে উঠবে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট যুদ্ধ! না, এখনই তেমন কিছুই বলা যাচ্ছে না। তবে এটা নিঃসন্দেহে ক্রিকেট প্রেমীদের জন্য ভালো খবর যে আবারও মুখোমুখি বসতে যাচ্ছে দু’দেশের ক্রিকেট বোর্ড।

বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) সঙ্গে আবারও কথা বলার আগ্রহ প্রকাশ করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। চলতি বছরের ১৭ ডিসেম্বর কলম্বোতে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সভা। সেখানে পাকিস্তান বোর্ড সভাপতি শাহরিয়ার খান উপস্থিত থাকবেন, থাকবেন বিসিসিআইয়ের ভারতীয় বোর্ডের শীর্ষকর্তারাও।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের একটি সূত্র জানিয়েছে, সম্প্রতি আইসিসির কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে অনুরাগ ঠাকুরের সঙ্গে কথা হয়েছে নাজাম শেঠির।ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি অনুরাগ ঠাকুর জানিয়েছিলেন, এখনই ভারতের পক্ষে পাকিস্তানে গিয়ে খেলা সম্ভব নয়। কারণ, সরকারের অনুমতি পাওয়া যাবে না। তবে পাশাপাশি অনুরাগ ইঙ্গিত দিয়েছেন, অন্য দেশে বেশ কিছু দলকে নিয়ে যদি টুর্নামেন্ট হয়, তাহলে ভারতের আপত্তি নেই।

অনুরাগের এই ভাষ্যে পাকিস্তান বোর্ড বেশ আশাবাদী।শাহরিয়ার বলছেন, ‘দুই দেশের রাজনৈতিক সম্পর্ক যাই হোক, ক্রিকেটে সেই সম্পর্কের রেশ টেনে না আনাই ভালো। আমাদের দিক থেকে আমরা সবসময়ই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। দুই দেশকেই এগিয়ে আসতে হবে।’

তবে ভারতীয় বোর্ড প্রেসিডেন্টকে তখন মনে করিয়ে দেওয়া হয়, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির গ্রুপ পর্বে পাকিস্তানের সঙ্গে খেলতে চাইছে না ভারত।তখন অনুরাগ জানিয়ে দেন, কলোম্বতেই নাকি বিস্তারিত আলোচনা করবেন।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ফাইনালে জিম্বাবুয়ে

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা বলতেই পারে, আমাদের ভাগ্যটাই খারাপ। তা না হলে পরপর তিন ম্যাচে কোন দল এমন দুর্ভাগ্যের সামনে পড়ে? জিম্বাবুয়ের সাথে ড্র, পরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাত্র এক রানের হার। আর শেষ ম্যাচে ডার্কওয়ার্থ লুইস। তাই আর ফাইনাল খেলাও হলো না তাদের।

বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠেছে জিম্বাবুয়ে। শিরোপার লড়াইয়ে তারা মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কার। শুক্রবার বুলাওয়ের কুইন্স স্পোর্টস ক্লাবে বৃষ্টির কারণে ওভার কমে বিপাকে পরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আগের দুই ম্যাচের মতো এ ম্যাচে অবশ্য শুরটাও ভালো হয়নি তাদের।

বৃষ্টিতে ভেসে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্বপ্নও। ছবিঃ সংগৃহীত

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ৪৯ ওভারে আট উইকেটে ২১৮ রান করে জিম্বাবুয়ে। তাদের ইনিংসের একাদশ ওভারে বৃষ্টি নামলে ম্যাচের দৈর্ঘ্য এক ওভার কমে। জিম্বাবুয়ের দেওয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ২৭ ওভার তিন বলে পাঁচ উইকেটে ১২৪ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু বৃষ্টির দাপটে সেখানেই খেলা শেষ হয়ে যায়। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে তখন জয়ের জন্য তাদের দরকার ছিল ১৩০ রান। এই জয়ে আট পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে এল জিম্বাবুয়ে। সাত পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থেকে বিদায় নিল জেসন হোল্ডারের দল।

শুরুটা ভালো হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ১২ রানের মধ্যে এভিন লুইস ও জনসন চার্লসকে ফিরিয়ে দেন টেন্ডাই চিশোরো। কিছুটা থিতু হয়েও ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েইট ২৪ ও শাই হোপ ১৪ রানে ফিরেন। রোভম্যান পাওয়েল ফিরেন এক অঙ্কেই। জোনাথন কার্টার (৪৩) ও হোল্ডার (২২) দলকে লড়াইয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু তাদের প্রচেষ্টায় জল ঢেলে দেয় বৃষ্টি। জিম্বাবুয়ের পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন চিশোরো ও শন উইলিয়ামস।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে ৮৯ রানে সাত উইকেট হারিয়ে ভীষণ বিপদে পড়ে জিম্বাবুয়ে। ডোনাল্ড টিরিপানোর সঙ্গে ৩৮ রানের জুটিতে প্রথম থেকেই প্রতিরোধ গড়েন সিকান্দার রাজা। টিরিপানোর বিদায়ের পর অবিচ্ছিন্ন নবম উইকেটে চিশোরোর সঙ্গে ৯১ রানের দারুণ এক জুটি গড়েন। তিনটি চারে ৭৬ রানে অপরাজিত থাকেন রাজা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের অ্যাশলি নার্স ও দেবেন্দ্র বিশু তিনটি করে উইকেট নেন।

সূত্রঃ ইএসপিএন ক্রিকইনফো

প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ৫ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান!

কোনো তরুণ প্রতিভার সঙ্গে ‘নতুন টেন্ডুলকার’ তকমাটা এঁটে যাওয়া ভারতে নতুন কিছু নয়। তবে রুদ্র প্রতাপের জন্য তরুণ কথাটাও অনেক বেশি হয়ে যায়। দিল্লির এই শিশুর বয়স যে মাত্র পাঁচ! কিন্তু এই বয়সেই সে তার প্রায় তিন গুণ বেশি বয়সীদের সঙ্গে প্রায় পাল্লা দিয়েই খেলেছে। তার এই ভিডিওই এখন ভাইরাল হয়ে গেছে ফেসবুক-টুইটারে।

হুট করে দেখলে মনে হবে, দিল্লির অনূর্ধ্ব ১৪ দলের সঙ্গে পাঁচ বছর বয়সী রুদ্র প্রতাপ বোধ হয় ভুল করে মাঠে নেমে গেছে। মাঠের সবাই তার চেয়ে অনেক বড়, শরীরের চেয়ে বড় ব্যাট-হেলমেট রুদ্র প্রতাপকে প্রায় ঢেকেই দিয়েছে। সত্যি বলতে কি, মাঠে যে স্টাম্প বসানো, সেটার চেয়ে ইঞ্চি কয়েক বেশি উচ্চতা রুদ্রর।
কিন্তু ২২ গজে নামার পরেই বোঝা গেল, এই ছেলেকে এমনি এমনি নামানো হয়নি। রীতিমতো পেশাদার ক্রিকেটারদের মতো স্ট্যান্স, এই বয়সী একটা ছেলের খেলার ধরন দেখলে চোখ কপালেই উঠে যাওয়ার কথা। রুদ্র প্রতাপ অবশ্য ম্যাচের শেষ দিকে নেমেছিল, খুব দ্রুত রানও তুলতে পারেনি। কিন্তু যা করেছে, সেটার জন্যই পেয়ে গেছে বিস্তর হাততালি। আর ইউটিউবের কল্যাণে তো রাতারাতিই বিখ্যাত হয়ে গেছে।
হোক না বয়সভিত্তিক ক্রিকেট, এ তো আর এমনি এমনি খেলা নয়। রীতিমতো প্রতিযোগিতা। আর তাতেই কি না খেলছে পাঁচ বছর বয়সী এক ব্যাটসম্যান! শোরগোল তো হবেই!

ইংলিশ ক্রিকেটারদের ভাতা দিতে বিসিসিআইয়ের গড়িমসি

এরই মধ্যে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের চলমান ভারত সফরের ১৯ দিন কেটে গেছে। দু’টি টেস্টও শেষ করে ফেলেছে অ্যালিস্টার কুকের দল। কিন্তু এখনও বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) থেকে কোন খরচের টাকা পায়নি দলটি।

লোধা কমিটির সুপারিশে এক সময় এই সিরিজই বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছিল। তবে, পরবর্তীতে নিজেদের মধ্যে সমঝোতায় এই সিরিজ মাঠে গড়ায়। মুলত, লোধা কমিটির সুপারিশে সুপ্রীম কোর্টের নির্দেশে রাজ্য সংস্থাগুলোকে টাকা দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রথম তিন টেস্টের জন্য রাজ্য সংস্থাগুলোকে টাকা দেওয়ার বিসিসিআই’র আবেদন মঞ্জুর করে সুপ্রীম কোর্ট। যদিও সেই টাকার মধ্যে ক্রিকেটারদের হাত খরচ ছিলো না।।

সুপ্রীম কোর্টের এই নির্দেশের পরে বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডকে (ইসিবি) চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়, নিজেদেরকেই খরচ বহন করতে হবে ইসিবিকে। ইসিবি তাতেই রাজি হয়। অবশ্য পরবর্তিতে দুই বোর্ড এক সমঝোতা স্বাক্ষর করে যেখানে লেখা ছিল ভারতীয় ক্রিকেটারদের মতোই ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদেরও প্রতিদিনের খরচ দেবে বিসিসিআই। কিন্তু সেটা দেয়া হচ্ছেনা, এমনটাই প্রকাশ পেয়েছে ইসিবি থেকে।

ইসিবির একটি সূত্র প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) বলেছেন, ‘হ্যাঁ, ইংল্যান্ড দল এখনও বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে কোন ভাতা পায়নি। ক্রিকেটার ও স্টাফরা এখন আপাতত তাদের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করছে। এছাড়া তাদের সামান্য কিছু অর্থ ম্যানেজারের কাছে রাখা আছে সেটা দিয়েই কাজ চালাচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি বলছি না এটা বড় কোন আর্থিক সমস্যা কিন্তু আমাদেরও তো সীমাবদ্ধতা আছে।’

এব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে বিসিসিআইয়ের সম্পাদক কোন সাড়া দেননি। তবে তিনি চিঠি দিয়েছেন ইসিবিকে এমনটাই জানা গেছে। সেখানে লেখা হয়েছে, ‘বিসিসিআই ইসিবির সাথে করা সমঝোতা করেছে তা পূরণ করতে সামর্থ নয় এখন। কোর্টের এক আদেশে বিসিসিআইয়ের সব চুক্তি পূরণেই বাঁধা আছে।’

এছাড়া পরবর্তীতে ভারতে পাঁচশত ও এক হাজার রুপির নোট বাতিল করায় ইংল্যান্ড দলের উপরে তার বেশ প্রভাব পড়ে। নিয়ম অনুযায়ী ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদের প্রতিদিন ৫০ পাউন্ড বা ভারতীয় রুপিতে প্রায় ৪ হাজার দু’শ টাকা করে পাওয়ার কথা। একইভাবে ভারতীয় ক্রিকেটারদেরও পাওয়ার কথা। কিন্তু তারা পাচ্ছেন কী না তা জানা যায়নি।

এই মুহূর্তে ইংলিশ ক্রিকেটাররা তাদের ক্রেডিট কার্ডেই হোটেলের ছোট-খাট কাজ সারছেন। আর দলের ম্যানেজারের কাছে কিছু ভারতীয় টাকা রয়েছে। সেগুলো প্রয়োজন মতো দলকে দেওয়া হচ্ছে।

জানিয়ে রাখা ভালো, পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রথম দুটি শেষে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে বিরাট কোহলির ভারত। আগামী ২৬ নভেম্বর মোহালিতে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে দু’দল।

সূত্র: ক্রিকেট নেক্সট

বল টেম্পারিং করেছেন ফাফ ডু প্লেসি?

অস্ট্রেলিয়ার ঘরের মাঠে প্রথম টেস্ট জেতার পর ফাফ ডু প্লেসির নেতৃত্বে হোবার্ট টেস্টও এক ইনিংস ও ৮০ রানের বড় ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা। সেই সঙ্গে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ তে সিরিজ নিশ্চিত করেছে সফরকারীরা।

তবে এত আনন্দের মাঝেও বিতর্কের মুখে সফরকারী দলের অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। অভিযোগ উঠেছে হোবার্ট টেস্টে বল টেম্পারিং করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ভারপ্রাপ্ত এই অধিনায়ক।

ঘটনার সূত্রপাত, হোবার্টে অস্ট্রেলিয়াকে লজ্জায় ডুবানো দ্বিতীয় টেস্টের একটি ভিডিও ফুটেজ থেকে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, হোবার্ট টেস্টের ৫৪ তম ওভারে অধিনায়ক প্লেসি মুখে আঙ্গুল ঢুকিয়ে লালা মাখানো সেই আঙুল দিয়ে বলের এক পাশ ঘষছেন। দুইবারের বেশি এমনটা করতে দেখা গেছে তাকে। ক্যাগিসো রাবাদার করা ওই ওভারে আউট হয়েছেন পিটার নেভিল ও জো মেনি।

তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। ছবি: সংগৃহীত

যদিও আম্পায়াররা প্লেসির বিরুদ্ধে এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ আনেননি। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) জানিয়েছে এ ঘটনার তদন্ত করবে তারা।

ক্রিকেটে আইন প্রণয়ন সংস্থা এমসিসির নিয়ম অনুযায়ী, একজন ফিল্ডার বল ঘষতে পারেন। তবে তাতে কৃত্রিম বস্তু ব্যবহার করা যাবে না। ২০০৫ সালে অ্যাশেজে এমনই এক ঘটনা ঘটায় ইংল্যান্ড। তবে ১১ বছর আগের সেই ঘটনায় ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি আইসিসি।

এদিকে প্লেসিস এর আগেও বল টেম্পারিংয়ের দায়ে শাস্তি পেয়েছিলেন। ২০১৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে বলের একপাশের শাইন নষ্ট করার জন্য ট্রাউজারের জিপারে বল ঘষার অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। এ কারণে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানাও গুনতে হয়েছিল তাকে।

তথ্য সূত্র: ডেইলি মেইল,

দুই প্রান্তে একজন আম্পায়ার!

ভারতের চলমান রঞ্জি ট্রফিতে ঘটলো এক অদ্ভুত ঘটনা। মহীসুরে অনুষ্ঠিত রোববারের ম্যাচে একজন আম্পায়ারই দিনভর প্রান্ত বদল করে মাঠের দায়িত্ব পালন করেছেন। মুম্বাই ও উত্তর প্রদেশের মধ্যকার ম্যাচের দ্বিতীয় দিন এই ঘটনা ঘটে।

বীরেন্দ্র শর্মা নামের এই আম্পায়ার তার সহ আম্পায়ারের অনুপস্থিতিতে একাই পুরো ম্যাচ পরিচালনা করেন। তার সাথে মাঠে থাকার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার স্যাম নোগাস্কির। কিন্তু আগের দিন রাতে হঠাৎ তিনি খাবারের বিষক্রিয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সকালে কোন আম্পায়ারের শিডিউল না থাকায় কাউকে পাওয়া যায়নি।

তবে মাঠের পাশে ভেনেজিৎ ডি সাহায্যকারী আম্পায়ার হিসেবে ছিলেন কিন্তু তিনি মাঠে প্রবেশ করতে পারেন নি। কারণ তিনি বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) তালিকাভুক্ত আম্পায়ার নন।  পুরোটা দিন প্রতি ওভারে বীরেন্দ্রকে প্রান্ত বদল করতে হয়েছে।

ম্যাচ রেফারি ভি নায়ক কাট্টের বিসিসিআইয়ের সাথে আলোচনা করে ম্যাচের বাকী দুদিনের জন্য পি জাইপ্লাকে নিয়োগ দিয়েছেন।

সূত্র: ইএসপিএন ক্রিকইনফো,