জাতীয় লীগে একাই ৭ উইকেট নিলেন মনির

প্রথম দিনের ৩৪৮ রানের সঙ্গে ৯৬ রান যোগ করে ৪৪৪ রানের পুঁজি পেল খুলনা বিভাগ।

প্রথম দিন খুলনার ৩ উইকেট নিতে পেরেছিল বরিশাল। আজ দ্বিতীয় দিনের খেলায় প্রথম সেশনেই ৭ উইকেট তুলে নেয় বরিশাল। ৭টি উইকেটই নেন স্পিনার মনির হোসেন। বাঁহাতি এ স্পিনারের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে খুলনা ফিরে এসেছে ম্যাচে। প্রথমবারের মতো প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৭ উইকেট পেলেন মনির হোসেন। এর আগে ইনিংসে সর্বোচ্চ ৬ উইকেট নিয়েছিলেন।

মনির প্রথম সেশনে বোলিং যাদু দেখালেও সবার নজর ছিল মেহেদী হাসানের দিকে। ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান প্রথম দিন ১৬৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার নজর ছিল ডাবল সেঞ্চুরিতে। কিন্তু দ্বিতীয় দিন মাত্র ১২ রান যোগ করতেই সাজঘরের পথ ধরেন। মনিরের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ১৭৭ রানে আউট হন ২২ বছর বয়সি মেহেদী।

সকালে মোহাম্মদ মিথুনকে ফিরিয়ে প্রথম সাফল্য পান মনির। এরপর মেহেদীর উইকেট নেন। এরপর একে একে একে জিয়াউর রহমান (২), মাশরাফি বিন মু্র্তজা (০), কাজী নুরুল হাসান সোহান (৩৩), আব্দুর রাজ্জাক (১), আল-আমিনের (৭) উইকেট নেন মনির। হ্যাটট্রিকের সুযোগও এসেছিল তার সামনে। ১১৪তম ওভারে জিয়াউর রহমানকে বোল্ড করেন এ স্পিনার। পরের বলে মাশরাফি বিন মুর্তজাও সরাসরি বোল্ড হন। হ্যাটট্রিক বলটি কোনো মতে ঠেকিয়ে দেন মইনুল ইসলাম। শেষ পর্যন্ত মইনুল ইসলাম ২২ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

প্রথম দিন তানভীর ইসলাম ২টি এবং কামরুল ইসলাম রাব্বী ১টি উইকেট পেয়েছিলেন। খুলনার হয়ে মেহেদী বাদে সেঞ্চুরির দেখা পান তুষার ইমরান। ১৩২ রান করেন তুষার।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s