দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগেই মুশফিকের ভূমিকা ঠিক করা হবে: আকরাম খান

মুশফিকের উইকেট কিপিং নিয়ে আগেও আলোচনা ছিল। অস্ট্রেলিয়া সফরেও বিষয়টি আলোচনার বাইরে থাকেনি। এই সিদ্ধান্ত টিম ম্যানেজমেন্ট মুশফিকের ওপর চাপিয়ে দিলেও। মুশফিক চাপিয়ে দিয়েছেন টিম ম্যানেজমেন্টের ঘাড়ে। তাই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে মুশফিকের ভূমিকা কী হবে এমন প্রশ্নে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান শুক্রবার বললেন, ‘উভয় পক্ষের বসেই সব কিছু ঠিক করতে হবে। এমন কিছু চিন্তাধারা ছিল বলেই লিটনকে দলে রাখা হয়েছিল। ওর মাথায় যেহেতু কিপিংয়ের ভাবনাটা এসেছে, দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের আগে যেটা ভালো হয় সেটা করবো।’

গতকাল মুশফিক দলে নিজের ভূমিকা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন। নিজের ব্যাটিং পজিশন, কিপিং ও দলে নিজের ভূমিকা নিয়ে কথা বলতে গিয়েই মন্তব্য করেন এভাবে, ‘যদি কিছু ছাড়তে হয় টিম ম্যানেজমেন্ট যেভাবে চাইবে, সেটাই করবো’। এমন মন্তব্যে অবশ্য এটা পরিষ্কার এতসব দায়িত্ব নিয়ে দ্বিধায় আছেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক। এমনকি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে ব্যাটিং পজিশন নিয়ে ধারাবাহিক ছিলেন না। চট্টগ্রামে দুই ইনিংসেই ব্যাট করেছেন ৬ নম্বরে। এর উত্তরে আকরাম খান বলেন, ‘ বোর্ড সিনিয়র খেলোয়াড়দের অনেক সম্মান করে থাকে। তাদের যে কোনও পরামর্শ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে থাকে। এটাও সত্য এই গরমে সারাদিন ফিল্ডিং করে চারে ব্যাটিং করা কঠিন। আবার ওরও দায়িত্ব আছে। সিনিয়র খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হিসেবে দলের স্বার্থ আমাদের চেয়ে ওকেই বেশি দেখতে হয়। নিশ্চয়ই ওর পরামর্শে এমন রদ বদল হয়েছে। আগেও টেস্টে ওকে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবেই খেলানো হয়েছে। সে আমাদের দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান।’

ঢাকা টেস্টের একাদশে জায়গা হয়নি মুমিনুল হকের। অবশ্য চট্টগ্রামে সুযোগ পান। দুই ইনিংসে অন্য ব্যাটসম্যানের চেয়ে তুলনামূলকভাবে ভালো ব্যাটিং করলেও বিতর্ক থেকে মুক্ত হতে পারেননি। অবশ্য এই বিতর্কের কারণ তার ব্যাটিং অর্ডার! দুই ইনিংসেই ভিন্ন পজিশনে ব্যাট করতে হয়েছে তাকে। প্রথম ইনিংসে চার নম্বরে ব্যাট করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে দেখা গেছে আটে! তখন স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছিল এই অর্ডার পরিবর্তন নিয়ে। মুশফিক অবশ্য এর ব্যাখ্যা দিয়েছেন টেস্টের পরেই। একই প্রশ্নের জবাবে মুশফিকের সঙ্গেই সুর মেলালেন আকরাম খান। বললেন, ‘এটা হয়েছে আসলে পরিস্থিতির কারণে। সবাইকে দলের স্বার্থ আগে দেখতে হবে। যে যেখানে ব্যাটিং করুক পারফরম্যান্সটা গুরুত্বপূর্ণ। মুমিনুল কাল আটে নেমেছে, তার ব্যাটিং দেখে কিন্তু মনে হয়েছে সে ছন্দে আছে। আমি আমার জায়গায় না নামলে ভালো ব্যাটিং করতে পারব না-এটা নেতিবাচক ভাবনা। এটা খেলোয়াড়দের থাকা ঠিক নয়।’

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s