শাস্তি হতে পারে বরিশাল বুলস মালিকের

সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে বাজে বন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) বরিশাল বুলসের অন্যতম কর্ণধার এম এ আওয়াল বুলু। তার দাবি, মুশফিক দলের ভেতর গ্রুপিং করেন। শুধু তাই নয়, মুশফিকের অধিনায়কত্ব নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি।

বিসিবির পরিচালক ও বরিশাল বুলসের অন্যতম কর্ণধার এম এ আওয়াল বুলুর এমন মন্তব্যে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও বিপিএল গভর্নিং বোর্ড। এ ঘটনায় বরিশাল বুলসের মালিককে অবশ্যই ক্ষমা চাইতে হবে, অন্যথায় তাকে শাস্তি পেতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিপিএল গভর্নিং বোর্ডের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক। শনিবারই বরিশাল বুলসের মালিক ও বিসিবির অন্যতম ওই পরিচালককে শোকজ নোটিশ পাঠিয়েছে দেশের ক্রিকেট সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এ প্রসঙ্গে বিপিএল গভর্নিং বোর্ডের সচিব মল্লিক বলেন, ‘আমি বিসিবিতে এসে শুনলাম মুশফিকুর রহিম গত বছর বিপিএলে যে দলের হয়ে খেলেছে। সেই দলের মালিক তার বিরুদ্ধে কিছু উল্টা-পাল্টা কথা বলেছে। আমরা সেই বক্তব্যর ভিডিও দেখেছি, আমি ও বিসিবির সিও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন। দেখার পর বিষয়টা আমাদের কাছে শোভনীয় মনে হয়নি। আমি বিপিএল গভর্নিং বোর্ডের সচিব হিসেবে অন্যদের সাথে বিষয়টা নিয়ে আলোচনা করেছি। বিসিবির সভাপতি দেশের বাইরে আছেন। অবশ্যই বিসিবি ব্যবস্থা নেবে।’

জাতীয় দলের একজন খেলোয়াড় প্রসঙ্গে এমন মন্তব্য করার অধিকার কারোর নেই জানিয়ে ইসমাইল হায়দার মল্লিক আরও বলেন, ‘সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে ও আমাদের একজন জাতীয় দলের খেলোয়াড়। জাতীয় দলের খেলোয়াড় সম্পর্কে প্রকাশ্যে এইভাবে কথা বলার অধিকার আমরা কাউকে দেইনি। বিপিএলের একটা কোড অব কন্ট্রাক্ট রয়েছে। খেলোয়াড়দের সম্পর্কে কোনো অভিযোগ থাকলে সেটা বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল বরাবর অভিযোগ জানাতে হবে। খেলোয়াড়রা কোনো ভুল করলে তাদের শাসন করা কিংবা শাস্তি দেওয়ার বিষয়টি থাকলে সেটা বোর্ড করবে। কোনো ফ্র্যাইঞ্চাইজিদেরতো এটা করার কোনো এখতিয়ার নেই।’

কেমন শাস্তি হতে পারে এমন প্রশ্নের উত্তরে বিপিএল গভর্নিং বোর্ডের সচিব বলেন, ‘তাকে শোকজ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ঠিকঠাক উত্তর না পেলে আমরা ফ্র্যাইঞ্চাজির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। এটা আর্থিক হতে পারে কিংবা ভিন্ন কোনো শাস্তিও হতে পারে।

শনিবার দুপুরে বরিশাল বুলসের মালিকের করা মন্তব্যের প্রতিবাদে বিসিবিতে সংবাদ সম্মেলন করতে এসে মুশফিক অনেকটা আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন। এসময় তার কন্ঠরোধ হয়ে আসছিল বারবার। চোখ ছলছল করছিল। একপর্যায়ে সংবাদ সম্মেলন শেষ না করেই তিনি লাউঞ্জ থেকে বেরিয়ে চলে যান।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s