ওয়ানডের জন্য নতুন অধিনায়ক খোঁজা শুরু করেছে বিসিবি

টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটকে বিদায় বলেছেন বেশিদিন হয়নি। মার্চ-এপ্রিলে শ্রীলঙ্কা সফরে শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগে সবাইকে অবাক করে হঠাৎ অবসরের ঘোষণা দিয়ে বসেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। মুহূর্তেই ওলট পালট হয়ে পড়ে বাংলাদেশের ক্রিকেট। বাংলাদেশ দলের পথ প্রদর্শককে টি-টোয়েন্টিতে ফেরাতে দেশের বিভিন্ন জয়াগায় মানব বন্ধন পর্যন্ত হয়েছে।

ফেরেননি মাশরাফি। বলে দেন ওটাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। তবে ওয়ানডে নিয়ে এখনো অনেক পরিকল্পনা তার। খেলে যেতে চান যতোদিন ভালো লাগে। যদিও সেটা যে লম্বা সময়ের জন্য হবে না, তা নিজেও ভালোভাবে জানেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক।

বয়স চলছে ৩৩। সেই সাথে লড়াই চালাতে হচ্ছে আটবার অস্ত্রোপচার করানো হাঁটু নিয়ে। এসব ব্যাপারগুলো বিবেচনায় আছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেরও (বিসিবি)। তাই তো ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে ওয়ানডের জন্য নতুন অধিনায়ক নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে বিসিবি।

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে সরাতে নয়, সে দায়িত্ব ছাড়লে কার হাতে ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব দেয়া যায় সেই ব্যাপারে ভাবতে শুরু করেছে দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। অন্যভাবেও বলা যায়, নতুন অধিনায়ক খোঁজার প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে বিসিবি।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সভা শেষে দেশে ফিরে এমনই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব নিয়ে কথা উঠেছিলো বলেই মাশরাফির সাথে আলোচনা করেছিলেন বিসিবি সভাপতিসহ বোর্ডের বিভিন্ন কর্মকর্তারা। এবার বিসিবি সভাপতির কথায় মনে হয়েছে টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক পরিবর্তন করে একটা প্রক্রিয়া শুরু করেছে বিসিবি। যেটা ভবিষ্যতে অন্যান্য ফরম্যাটেও কার্যকর করতে চায় বিসিবি।

২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত মাশরাফি খেলতে পারবেন কি না সে ব্যাপারে নিশ্চয়তা ছিলো না বলেই নতুন অধিনায়ক আনা হয়েছে। কারণ কাউকে হঠাৎ করে অধিনায়ক না বানিয়ে আগে থেকেই তৈরি করলে সেটাতে ভালো ফল আসে বলে বিশ্বাস নাজমুল হাসান পাপনের। এ পথে ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা বিবেচনায় রেখেছে বিসিবি।

টি-টোয়েন্টিতে নতুন অধিনায়ক দেয়া একটা পদক্ষেপ জানিয়ে নাজমুল হাসান বলেন, ‘অলরেডি এটা নিয়ে একটা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। আপনারা দেখেন টি-টেয়েন্টি অধিনায়কত্ব নিয়ে একটা কথা উঠেছিলো। ২০২০ এ মাশরাফি খেলতে পারবে কিনা তা আমরা জানি না। সে জন্য কিন্তু আমরা তখন ওর সঙ্গে আলাপ আলোচনা করেছিলাম।’

একইভাবে ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত মাশরাফি খেলতে পারবেন কি না সেটাও বলা যাচ্ছে না। যে কারণেই ভবিষ্যত ওয়ানডে অধিনায়কের ব্যাপারে ভাবা হচ্ছে। বিসিবি সভাপতি বলছেন, ‘আলোচনার পর টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের ডিক্লেয়ারেশন ও নিজে থেকেই দিয়েছে। আমরা বলিনি কবে কখন এটা হবে। আলাপ করার পর সে নিজেই ডিক্লেয়ার দিয়েছে। আমরা প্রসেস (ওয়ানডের নতুন অধিনায়ক প্রক্রিয়া) নিয়ে আলোচনা করছি এটাও তো বিরাট উদাহরণ।’

প্রিয়.কম

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s