শ্রীলঙ্কা ম্যাজিক যা দেখানোর দেখিয়েছে ভারতের বিপক্ষে। ৩২১ রান তাড়া করে জিতেছিল। ওই ম্যাচ জয়ের পর সম্ভাবনা ছিল তাদের সেমিফাইনাল খেলার; কিন্তু পাকিস্তানের সামনে এসে আর পারলো না। হেরে যেতে হলো ৩ উইকেটের ব্যবধানে। সে সঙ্গে বিদায় নিলো অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের দল এবং সেমিফাইনালে উঠে গেলো পাকিস্তান।

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানকে ২৩৭ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। এক নিরোশান ডিকভেলা ছাড়া আর কেউ দাঁড়াতে পারেনি পাকিস্তানি বোলারদের সামনে। ডিকভেলা করেন ৭৩ রান। ম্যাথিউজ করেন ৩৯ রান। মোহাম্মদ আমির ও ফাহিম আশরাফ ২টি করে  এবং জুনায়েদ খান ও হাসান আলি নেন ৩টি করে উইকেট।

জবাব দিতে নেমে আজহার আলি এবং ফখর জামান শুরুটা দুর্দান্ত করেন। দু’জন মিলে গড়ে ফেলেন ৭৪ রানের জুটি। এরপর ৩৪ রান করে বিদায় নেন আজহার আলি।

আজহার আলির বিদায়ের পর দ্রুত উইকেট পড়তে থাকে পাকিস্তানের। বাবর আজম ১০ রান, মোহাম্মদ হাফিজ ১, শোয়েব মালিক ১১ এবং ইমাদ ওয়াসিম বিদায় নেন ৪ রান করে। অথ্যাৎ বিনা উইকেটে ৭৪ থেকে ৬ উইকেটে পাকিস্তানের রান ১৩৭।

শেষ দিকে ফাহিম আশরাফকে নিয়ে ২৫ রানের এবং মোহাম্মদ আমিরকে নিয়ে ৭৫ রানের জুটি গড়েন সরফরাজ আহমেদ। মোহাম্মদ আমির তো জেনুইন ব্যাটসম্যানের মত ব্যাট করেছেন। ৬১ রানে অপরাজিত থাকেন সরফরাজ আহমেদ। শেষ পর্যন্ত ৪৪.৫ ওভারে (৩১ বল হাতে রেখে) ৭ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় পাকিস্তান।

কার্ডিফেই ১৪ জুন প্রথম সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। পরেরদিন দ্বিতীয় সেমিফাইনালে এজবাস্টনে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ এবং ভারত।

Advertisements