‌৪৮ ওভারে ৩১৯ রানের পাহাড় পাকিস্তানের ওপর চাপিয়ে দিল টিম ইন্ডিয়া।পাকিস্তানকে জিততে হলে ৩২৪ রান করতে হবে ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়ম অনুযায়ী।যা রীতিমত চ্যালোঞ্জের।বিরাট কোহলির দুরন্ত ৮১ রানের ইনিংসে এই চ্যালেঞ্জ পাকিস্তানকে ছুঁড়ে দেওয়া সম্ভব হয়।পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।মন্থর গতিতে শুরু হয়েছিল।তবে তার গতি ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেল ওপেনিং জুটিতেই। হাইভোল্টেজ ম্যাচে রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ানের পারফরম্যান্সে পাকিস্তান বোলিং ছন্নছাড়া হয়ে পড়ল। খেলা শুরুর থেকেই আক্রমণে ভারত। হাফসেঞ্চুরিও করে ফেললেন দুই ওপেনারই। ২২ ওভারে কোনও উইকেট না হারিয়ে ভারতের রান যখন ১২৬ তখন বৃষ্টিতে থমকে গিয়েছিল ম্যাচ। যার জেরে ৪৮ ওভার করে খেলবে দুই টিম। প্রথমে গতি বাড়ান রোহিত শর্মা। এক্সট্রা কভারে অসাধারণ এক বাউন্ডারিতে চোখ ধাঁধিয়ে যায়। পাক স্পিনার সাদাব খানের ওভারে ফায়দা তোলা সম্ভব হয়। প্রথম দু’টো বল ডট হয়। এরপর বড় শট নিতে গিয়ে মিসটাইমিং হয়। পরের বলে অসাধারণ শটে বল গিয়ে পড়ে মাঠের বাইরে। হাফসেঞ্চুরি করেন রোহিত।  ২০ নম্বর ওভার করতে আসেন ওয়াহাব রেয়াজ। পরপর তিনটি চার মেরে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেন শিখর ধাওয়ান। কিন্তু ২৪ ওভারের মাথায় সাদাব খানের বলে ৬৮ রানে ক্যাচ আউট হয়ে ফিরতে হয় তাঁকে। তারপর ৩৬ ওভারের মাথায় ৯১ রান করে রান আউট হন রোহিত শর্মা। শিখর ধাওয়ানের পর মাঠে নামেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। আর রোহিত শর্মার পর নামেন যুবরাজ সিং।৫৩ রানে আউট হন যুবরাজ সিং।তখন ক্রিজে আসেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।ইনিংসের শেষ পর্যন্ত ্অপরিবর্তিত থাকে এই জুটি।

Advertisements