২০০৭ সালের বিশ্বকাপে ভারতকে হারিয়ে দেওয়ার সেই স্মৃতি বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকরা এখনো ভোলেননি। এখনো সেই স্মৃতি তাদের মনে আনন্দের খোড়াক যোগায়। তবে ভারতীয় সমর্থকরা হয়তো সেই স্মৃতি ভুলেই যেতে চাইবে। কিন্তু কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচিন টেন্ডুলকার এখনো ভোলেননি সেই দিনের কথা। তিনি এখনো ভাবতেই পারছেন না, বাংলাদেশের কাছে ভারত হেরেছে।

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে শচিনের বায়োপিক। এই বায়োপিকেও উঠে এসেছে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার ম্যাচের সেই ঘটনা। সে সম্পর্কে বলতে গিয়ে শচিন জানান, ম্যাচের আগেই নাকি তিনি বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়াকে (বিসিসিআই) সাবধান করে দিয়েছিলেন বাংলাদেশ দল সম্পর্কে। তিনি নিজে থেকেই কয়েকজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে দলে নিতে বলেছিলেন। কিন্তু দলের সেসময়ের কোচ গ্রেগ চ্যাপেল কয়েকজনকেই সরিয়ে দিয়েছিলেন।

শচিনের ভাষ্যমতে, ‘অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররাই তখন চ্যাপেলের (গ্রেগ) বাইরে থেকে দলকে নিয়ন্ত্রণ করা মানতে চাইতেন না। বিশ্বকাপের মাত্র একমাস আগে তিনি (চ্যাপেল) দলের ব্যাটিং লাইন আপে এত বড় পরিবর্তন করলেন যা অনেককেই নাড়িয়ে দিয়েছিল। যা তাদের জন্য প্রয়োজনই ছিল না। কিন্তু অন্যান্য দলগুলো তাদের এক বছর আগের পরিকল্পনা ও নকশা অনুযায়ী অনুশীলন করেছে। কিন্তু আমরা তখনও নিজেদের মানিয়ে নিতে পারছিলাম না।’

বিশ্বকাপের সে আসরে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হেরে প্রথম পর্ব থেকেই দেশের পথ ধরতে হয়েছিল ভারতকে। সেই স্মৃতি এখনো পোড়ায় এই সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করা ব্যাটসম্যানকে। বলেন, ‘আমরা সেখানে একটা দল হিসেবে যোগ দিয়েছিলেম কিন্তু আসলে আমরা দলের মতো ছিলাম না। আমি বোর্ড কর্তাদেরও বলেছিলাম আমাদের দল সঠিক কাঠামোতে নেই। আমি কখনোই ভাবিনি আমরা বাংলাদেশের কাছে হেরে যাব।’

সূত্র: দ্য ডেইলিস্টার

Advertisements