২০১৯ সালে সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার জন্য আয়ারল্যান্ডে তিন জাতির টুর্নামেন্টে নিউজিল্যান্ডের কাছে প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ায় হিসেবটা এলোমেলে হওয়ার উপক্রম।

আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা ছয়ে ওঠার সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে কিন্তু সেই সুযোগ কাজে লাগানো যায়নি। বাংলাদেশ র‌্যাঙ্কিংয়ের সাত নম্বরে ছিল, আপাতত সেখানেই থাকছে বাংলাদেশ। সামনের ম্যাচে যদি নিউজিল্যান্ডকা কে বিশাল ব্যাবধানে হারাতে পারে তাহলে বাংলাদেশের সামনে র‍্যাঙ্কিংইয়ে ছয়ে উঠার একটা সুযোগ থেকেই যায়।

বাংলাদেশ সাতে থাকছে ঠিকই, মূল্যবান এক পয়েন্ট যে কমে গেছে, কিউইদের কাছে প্রথম ম্যাচ হেরে। । নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে ২৪ মে শেষ ম্যাচটিতে হারলে আরেক পয়েন্ট কমবে। তাতে করে আটে থাকা পাকিস্তানের (৮৮ পয়েন্ট) সঙ্গে মাত্র ১ পয়েন্ট পার্থক্য থাকবে। ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে সরাসরি খেলাতে প্রভাব তখন ভালভাবেই পড়ে যেতে পারে।

তিনজাতি সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ছিল ৯১। র‌্যাঙ্কিং ছিল সাত। শ্রীলঙ্কার ছিল ৯৩ পয়েন্ট। র‌্যাঙ্কিং ছয়। পাকিস্তানের (৮৮ পয়েন্ট) আট ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের (৭৯ পয়েন্ট) র‌্যাঙ্কিং নয় নম্বর। তিনজাতি সিরিজে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একটি ম্যাচ জিতলেই ছয় নম্বরে উঠে যেত বাংলাদেশ। তখন শ্রীলঙ্কাকে পেছনে ফেলত মাশরাফিবাহিনী। ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলাও অনেকটা নিশ্চিত করে নিত।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরেছে বাংলাদেশ। তাতে করে এক পয়েন্ট হারিয়েছে। এখন যদি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ ম্যাচটিতে হারে বাংলাদেশ, তাহলে এক পয়েন্ট হারাবে। তখন পাকিস্তানের সঙ্গে পয়েন্ট পার্থক্য হয়ে দাঁড়াবে ১। যা বাংলাদেশের বিশ্বকাপে খেলার সম্ভাবনায় বাধা তৈরি করবে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভাল করতে না পারলে আর পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ যদি ভাল খেলতে থাকে, তাহলে বাংলাদেশের বিপদ ঘনিয়ে আসতে পারে।

Advertisements