ওয়ালটন ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বুধবার আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনের ক্লোনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব মাঠে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ দল। এই ম্যাচে টাইগাররা কিউইদের বিপক্ষে ৪ উইকেটের ব্যবধানে হেরেছে।

এদিন টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা দুর্দান্ত হয়েছিলো বাংলাদেশ দলের, কিন্তু শুরুর মতো শেষটা ভালো হয়নি টাইগারদের। তামিম-সৌম্যর ব্যাটিং দেখে যেখানে ৩০০ পেরুনোর স্বপ্ন দেখছিলো বাংলাদেশ দল সেখানে শেষ পর্যন্ত ২৫৭ রানেই থামতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

টাইগারদের হয়ে পঞ্চাশ ছাড়ানো ইনিংস খেলেছেন তিনজন, তবে কেউই তিন অঙ্কে যেতে পারলেন না। বাংলাদেশ দলের দুই ওপেনার উইকেটে ছিলেন ১৫ ওভার পর্যন্ত। রানের গতি খুব বেশি না থাকলেও ভালই এগুচ্ছিলো টাইগারদের স্কোর।
ওপেনিং জুটির রান যখন ৭২ তখন জিমি নিশামের বলে কাভারে ধরা পড়েন তামিম। আর এরপরেই ছন্দ পতন হয় বাংলাদেশ দলের। পরের ওভারেই মিচেল স্যান্টনারের বলের লাইন মিস করে বোল্ড সাব্বির রহমান।

প্রায় দু বছর পর ওয়ানডেতে পঞ্চাশের দেখা পাওয়া সৌম্য সরকার ফিরেছেন ৬৭ বলে ৬১ রান করে ইশ সোধিকে সুইপ করতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে। বাংলাদেশের স্কোর যখন ১৩২ তখন সোধির দ্বিতীয় শিকার হয়ে আউট হয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

তখন টাইগারদের বিপর্যয় সামাল দেয়া মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ ভালোই খেলছিলেন। তবে, দারুণ খেলতে থাকা মুশফিক উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিলেন ৫৫ রানে। তাতেই মুশফিক-মাহমুদুল্লাহর ৫১ বলে ৪৯ রানের জুটি ভাঙে।

৫৬ বলে ৫১ রান করা মাহমুদুল্লাহ বেনেটের বলে আউট হলে মোসাদ্দেকের সঙ্গে ৬১ বলে ৬১ রানের আরেকটি বড় জুটি ভাঙে তাদের। মাহমুদউল্লাহর অর্ধশতক ৫৪ বলে।

জিমি নিশামের এক ওভারে তিন চার মেরেছেন মোসাদ্দেক, ৪১ বলে ৪১ করে ফিরেছেন শেষ ওভারে। একই ওভারে মাশরাফি হয়েছেন রান আউট আর মেহেদি হাসান মিরাজ হয়েছেন বেনেটের তৃতীয় শিকার।

২৫৮ রানের মাঝারি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে টম লাথামের ৬৪ বলে ৫৪, জিমি নিশামের ৪৮ বলে ৫২ আর মেইল ব্রুমের ৬৫ বলে ৪৮ রানের উপর ভর করে ২.৩ ওভার বাকি থাকতেই ৪ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে কিউইরা।

বাংলাদেশের হয়ে মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন নিয়েছেন ২ টি করে উইকেট। আর ১ টি উইকেট নিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দলপতি মাশরাফি কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন নিজেদেরকেই। তাঁর মতে ব্যাটিয়ে ২০ রান কম হওয়াতেই হারতে হয়েছে তাদের। তবে, সৌম্য সরকারের দারুণ ব্যাটিং ও পুরো দলের ভালো ফিল্ডিংয়ের প্রশংসাও করেছেন তিনি।

মাশরাফির ভাষ্য মতে, ‘আমি মনে করি আমরা আরও ভালো করতে পারতাম, বিশেষ করে আমি। ব্যাটিংয়ে আমরা ২০ রান কম করেছিলাম। সৌম্য কিছু রান করেছে। ফিল্ডিং খুব সুন্দর ছিল। আমরা ২৫০ রানের মধ্যে তাদের আরও কিছু উইকেট নিতে চেয়েছিলাম।’

Advertisements