চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে কেমন করবে বাংলাদেশ? অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কেমন খেলবেন মাশরাফি, সাকিব, তামিমরা? ইংল্যান্ডের উইকেট তো পেসারদের জন্য সহায়ক। সেখানে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ আবারও স্বমহিমায় উদ্ভাসিত হতে পারবেন তো? তার কাটার-স্লোয়ারে দিশেহারা ভাব ফুটে উঠবে তো প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানের ব্যাটে? মারমার, কাটকাট ব্যাটিংয়ের জন্য পরিচিত সাব্বির রহমান কী এই টুর্নামেন্টে নিজেকে নতুন করে চেনাতে পারবেন?
কিংবা ২০১৫ বিশ্বকাপের মতো মাহমুদউল্লাহর ব্যাট ইংল্যান্ডের মাটিতে আবারও জ্বলসে উঠবে?

ভক্ত-সমর্থকদের নানা কৌতূহলী প্রশ্ন। অনেক কিছু জানতে মন চায়। সাম্প্রতিক সময়ে মাশরাফি বাহিনীর দুর্দান্ত পারফরম্যান্স বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকদের প্রত্যাশার মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে। সেই বাড়তি মাত্রাকে নিচে রাখতে পরামর্শ দিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বিশেষ করে মোস্তাফিজের কাছ থেকে কাটার, স্লোয়ার কিংবা অসাধারণ কিছু পারফরম্যান্স আশা না করারও পরামর্শ দিয়েছেন। ইংল্যান্ডের উইকেটে দ্য ফিজের কাটার ধরার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। সুতরাং তাকে তার মতো খেলতে দেয়ার পক্ষে অধিনায়ক।

সাব্বির রহমান আগামী দু-তিন বছরের মধ্যে দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়ে রূপান্তরিত হবেন বলেও বিশ্বাস মাশরাফির। একই সঙ্গে মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে তার মন্তব্য, দলের জন্য একজন নিবেদিত প্রাণ। যেকোনো অবস্থায়, যেকোনো পজিশনে দলের হাল ধরার মতো একমাত্র ব্যক্তি হলেন মাহমুদউল্লাহ।

Advertisements