২০০৯ সালে ভারতের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে দ্বিতীয় বাংলাদেশী হিসেবে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন টাইগার কাপ্তান মাশরাফি বিন মর্তুজা। সেবার অবশ্য মাত্র একটি ম্যাচে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন এই ডানহাতি পেসার।

কেকেআরের হয়ে সেই ম্যাচে খেলে অবশ্য বল হাতে ভালো কিছু করতে পারেননি মাশরাফি। ডেকান চার্জাসের বিপক্ষে ৪ ওভার বল করে ৫৮ রান দিয়েছিলেন তিনি।

মাশরাফির সঙ্গে অবশ্য সেই বছর তারই আরেক সতীর্থ মোহাম্মাদ আশরাফুলও আইপিএলে খেলেছিলেন। একই দলে না খেললেও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জার্সি জড়িয়েছিলেন এই ডানহাতি।

সেবার আশরাফুলও মাত্র এক ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন। সেই ম্যাচে অবশ্য মাত্র এক রান করতে পেরেছিলেন তিনি। এরপর আর মুম্বাই একাদশে দেখা যায়নি তাকে। কিন্তু ২০০৯ সালের পর আর আইপিএলে খেলা হয়নি এই দুই টাইগার খেলোয়াড়ের।

এদিকে ২০০৭-০৮ মৌসুমে নতুন বলে আলো ছড়ানোর জন্য পরিচিত ছিলেন টাইগার দলপতি। প্রতিপক্ষ ওপেনার বা প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের ঘায়েল করার জন্য এই টাইগার পেসারের প্রথম স্পেল খুবই কার্যকর ছিল।

এমনকি আইপিএলের বিভিন্ন ফ্রেঞ্চাইজি নাকি টিম মিটিংয়ে নতুন বলে বোলিংয়ের উদাহারণ হিসেবে মাশরাফির ভিডিও ফুটেজ দেখানো হত।

এমনই তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মাদ আশরাফুল। চ্যানেল ২৪কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আশরাফুল জানান,

‘আমি যখন আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলি তখন টিম মিটিংয়ে নতুন বলে কোথায় বল করা উচিৎ এসব নিয়ে ভিডিও ফুটেজ দেখানো হত। বেশিরভাগ সময় টিম মিটিংয়ে মাশরাফির নতুন বলে বোলিং দেখানো হত। ’

Advertisements