পারফরম্যান্সের উপরে নির্ভর করবে টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর সদস্যপদ। পারফরম্যান্স খারাপ হলে হারাতে হতে পারে মর্যাদা, আবার ভালো করে নিজেদের সদস্যপদ ফেরত পাওয়া যাবে। ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের পক্ষ থেকে এমন প্রস্তাবি দেওয়া হয়েছে। যদিও প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

আইসিসির এই নতুন প্রস্তাব অনুযায়ী, পূর্ণ সদস্য মর্যাদা ধরে রাখতে হলে আট বছরের চক্রের মধ্যে একটি দেশকে আইসিসির ইভেন্টে অন্য একটি পূর্ণ সদস্য দেশের বিপক্ষে অন্তত একটি ম্যাচ জিততে হবে। এর পাশাপাশি পূর্ণ সদস্য যে কোনো দুটি দলের বিপক্ষে দ্বিপক্ষীয় সিরিজে জিততে হবে অন্তত চারটি ম্যাচ। এই নিয়মে পারফরম্যান্স খারাপ হলে পূর্ণ সদস্যদের অবিনতি দিয়ে সহযোগী দেশ বানিয়ে দেওয়া হবে।

আইসিসির এই নতুন সংশোধনী চলতি আইসিসির সভায় অনুমোদন পাওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু সভায় বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান এর বিরোধিতা করে বলেছেন, ‘আইসিসির পূর্ণ সদস্য মর্যাদা হওয়া উচিত অপরিবর্তনীয়।’

ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো জানিয়েছে, বিসিবিসহ আরও কয়েকটি বোর্ড এই ধারার ব্যাপারে আপত্তি তুলেছে। তবে বিসিবির আপত্তি আলাদা করে গুরুত্ব পাচ্ছে, কারণ আইসিসির যে কমিটি নতুন এই ধারার প্রস্তাব করেছে, বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসানও সেই কমিটির সদস্য ছিলেন।

আইসিসির প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা ইয়াইন হিগিংসকে লেখা এক চিঠিতে নাজমুল হাসান বলেছেন, ‘প্রস্তাবিত সংবিধানের খসড়া পর্যালোচনা করে বিসিবি এই অবস্থান নিয়েছে যে, কোনো পরিস্থিতিতেই পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর মর্যাদা ঝুঁকির মধ্যে ফেলা ঠিক হবে না। বরং এটা অপরিবর্তনীয় হিসেবে রাখা উচিত। প্রস্তাবিত ধারাটি শুধু আইসিসির সহযোগী সদস্যদেশগুলোর জন্য প্রযোজ্য হতে পারে। বিশেষ করে, আয়ারল্যান্ড ও আফগানিস্তানের মতো দেশ, যাদের সাময়িকভাবে পূর্ণ সদস্যের মর্যাদা দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে। তবে যখনই একটা দেশ অস্থায়ী পূর্ণ সদস্যের মর্যাদা থেকে স্থায়ী পূর্ণ সদস্যের মর্যাদা পেয়ে যাবে, সেটা অপরিবর্তনীয় রাখতে হবে।’

গেল রোববার অনুষ্ঠিত বিসিবির সভায় এ ব্যাপারে বোর্ড সদস্যদের সাথে কথা বলে এবং তাদের মতামত নিয়েই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সূত্র: ইএসপিএন ক্রিকইনফো

Advertisements