অভিষেকেই স্পটলাইট নিজের দিকে ঘুরিয়ে নিয়েছিলেন। চার ওভারে ২০ রান খরচায় ঝুলিতে দুই উইকেট। আবির্ভাবেই জানিয়ে দিয়েছিলেন বাম হাতের জাদুতে রাঙাবেন ক্রিকেট দুনিয়া। করেছেনও তাই। ২২ গজে মুস্তাফিজুর রহমানের রাজত্ব দেখেছে ক্রিকেট বিশ্ব। বাংলাদেশ জাতীয় দল থেকে শুরু করে আইপিএল, সাসেক্স- সবখানেই ছড়ি ঘুরিয়েছেন বাঁ-হাতি এই বাংলাদেশ পেসার।

১৪ ওয়ানডে খেলে তুলে নিয়েছেন ৩৬ উইকেট। টি-টোয়েন্টিতেও বলার মতো পারফরস্যান্স। ১৭ ম্যাচে ২৭ উইকেট। টেস্টে নিয়মিত না হওয়ায় চার ম্যাচ থেকে এসেছে ১২ উইকেট। তবে সময় গড়ানোর সাথে সাথে মুস্তাফিজের বোলিং পরিচিত হয়েছে প্রতিপক্ষ ব্যাসম্যানদের কাছে। হানা দিয়েছে ইনজুরিও। সব মিলিয়ে কাটার মাস্টার আগের সেই ছন্দে হাঁটতে পারছেন না।

নিউজিল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কা সফরে আগের সেই অবিশ্বাস্য মুস্তাফিজকে দেখা যায়নি। তবে এটাকেই স্বাভাবিক বলছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার মতে, মুস্তাফিজ আগে যেটা পেয়েছে সেটাই ছিলো অস্বাভাবিক। সাসেক্সে ১০ দিনের ক্যাম্পে অংশ নেয়ার জন্য দেশ ছাড়ার আগে মঙ্গলবার এমনই জানালেন কিছুদিন আগেই টি-টোয়েন্টিকে বিদায় বলে দেয়া মাশরাফি।

অনুজকে নিয়ে মাশরাফির ব্যাখ্যা, ‘মুস্তাফিজের কথা বললে, আমার মনে হয় ওর সঙ্গে এই মুহূর্তে যা হচ্ছে সেটা স্বাভাবিক। এর আগে ও যেটা পেয়েছে সেটা অস্বাভাবিক ছিলো। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এসেই আপনি ৪/৫ ম্যাচে ৩০ উইকেট পাবেন- এটা অবিশ্বাস্য একটি ব্যাপার। এখন যা হবে, ওকে কষ্ট করে উইকেট নিতে হবে।’

প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানরা মুস্তাফিজের বোলিংয়ের ধরন বুঝতে শুরু করেছে। স্বভাবতই আগের মতো সাফল্য মিলবে না। সাথে চোটও ভোগাচ্ছে মুস্তাফিজকে। মাশরাফি বলছেন, ‘ওকে পড়ছে ব্যাটসম্যারা। প্রত্যেকটা দলে সেরা পর্যায়ের কম্পিটার অ্যানালিস্ট থাকে। ওর সব শক্তির দিক ওরা বের করছে। মুস্তাফিজের জন্য আরও বড় সমস্যা যা তৈরি হয়েছে, সেটা হচ্ছে চোট। তিন-চার মাস হলো চোট থেকে সেরে উঠেছে।’

মুস্তাফিজের বয়সটাকেও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে মনে করছেন মাশরাফি। যে কারণে মুস্তাফিজকে নির্ভার রাখতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক, ‘ওর বয়সও মাত্র ১৯/২০। সব কিছু মিলিয়ে ওর দিকে যদি তাকান, ওর জন্য পরিস্থিতি খুব কঠিন এখন। একই সময়ে আমরাও যদি ওকে একইভাবে চাপে রাখি তাহলে ওর জন্য আরও কঠিন হবে।’

বরাবরের মতো মুস্তাফিজের সামর্থ্যর ওপর আস্থা রাখতে চান মাশরাফি, ‘ও এরই মধ্যে প্রমাণ করেছে, ভবিষ্যতের জন্য বাংলাদেশের বড় সম্পদ। ওকে যদি আমরা রিল্যাক্স রাখতে পারি, ওর প্রতি আমাদের যে প্রত্যাশা সেটা না করে যদি বাস্তবতা ভাবি আমার মনেহয় ও আমাদের জন্য আগামী ১০ বছরের জন্য আমাদের দারুণ সম্পদ হবে।’

Advertisements