সাসেক্সের ১০ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্পের পর ত্রিদেশীয় সিরিজ। এরপর আসল লড়াইয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। হাতে বেশ সময় থাকলেও মূলত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিকে সামনে রেখেই এগোচ্ছে মাশরাফিবাহিনী। আইসিসির মর্যাদাপূর্ণ এই আসরের আগে আয়ারল্যান্ড, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজকে প্রস্তুতি হিসেবে নিচ্ছে বাংলাদেশ।

এই সিরিজে ভালো করেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলতে যেতে যায় শ্রীলঙ্কায় দারুণ সময় কাটানো বাংলাদেশ। তবে ভালো প্রস্তুতিই সব সাফল্য এনে দেবে এমনটা মনে করেন না বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। সাসেক্সে ১০ দিনের ক্যাম্পের জন্য দেশ ছাড়ার আগে মঙ্গলবার মাশরাফি জানালেন, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ম্যাচে ভালো বোলিং করলেও ২৮০ বা ৩০০ রান চেজ করতে হবে।

এ নিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলছেন, ‘২৮০-২৯০ রান আমাদের ইংল্যান্ডে করতেই হবে বা তাড়া করতে হবে। ভালো বোলিং করলেও ২৮০ বা তিনশ রানের লক্ষ্য আমাদের তাড়া করতে হবে। আমাদের সেই মানসিকতা রাখতে হবে। খুব ভালো শুরু এরপর নিজেকে সামলানো- এই ব্যাপারগুলো নিয়ে মানসিকভাবে প্রস্তুত হলে কাজটা হয়তো সহজ হবে।’

ভালো শুরুর পরও ধস নামার উদাহারণ হিসেবে নিউজিল্যান্ড সফরের কথা উল্লেখ করেন মাশরাফি। যে কারণে কিছু জায়গায় আরো দৃঢ় হওয়ার পরামর্শ তার, ‘নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় বা তৃতীয় ওয়ানডে দেখেন। এক উইকেটে একশ রান করার পর আমাদের ইনিংসে ধস নেমেছিলো। এমন কিছু ইতিহাস আছে বলেই বলছি, কিছু জায়গায় আমাদের আরও দৃঢ় হতে হবে। ঠিক মতো বিশ্লেষণ করতে হবে। খেলাটা ঠিক মতো পড়তে হবে, বের করতে হবে ওইখানে কি করলে আমরা বড় স্কোর করতে পারবো।’

শ্রীলঙ্কা সফরের ব্যর্থতার কথাও মনে আছে ওই সফরেই টি-টোয়েন্টিকে বিদায় জানানো মাশরাফি। তাই আরো শক্তিশালী হতে বলছেন তিনি, ‘শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ ওয়ানডে আমরা যেটা খেলেছি সেটা একটু দেখেন। প্রস্তুতি ম্যাচে আমরা সাড়ে তিন’শ রানের লক্ষ্য প্রায় তাড়া করে ফেলেছিলাম। সেই একই রকম উইকেটে আমরা ২৮০ রান তাড়া করতে পারিনি। শুরুতে উইকেট হারিয়েছিলাম। কিছু কিছু জিনিস থাকে, কিছু কিছু জায়গা থাকে যেখানে স্ট্রংলি হ্যান্ডেল করতে হয়।’

ত্রিদেশীয় সিরিজ বা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বোলিং কম্বিনেশন কেমন হবে বাংলাদেশের? মাশরাফি বলছেন তিন পেসার নিয়ে খেলার কথা, ‘পাঁচ জন পেস বোলার। সাকিব আছে, মিরাজ আছে। রিয়াদও এখন দারুণ বোলিং করা শুরু করেছে, যদিও টি-টোয়েন্টিতে। সব সময় সৌম্য ভালো বোলিং করছে। যদিও ওকে ম্যাচে বোলিং দেওয়া হয় না। তবে মূল বোলার সবাই ভালো করছে। ওখানে যাওয়ার পর দেখা যাবে উইকেট কেমন হবে। তিন জন পেসার খেলার সম্ভাবনাই বেশি।’

Advertisements