হোম অব ক্রিকেট খ্যাত মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক সিরিজটি গড়িয়েছিল গত বছরের অক্টোবরে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। এরপর চলতি বছরের শুরুতে হাতে নেওয়া হয় স্টেডিয়াম সংস্কারের কাজ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) গ্রাউন্ডস ও ফ্যাসিলিটিস বিভাগের তথ্য মতে, আসছে জুলাই নাগাদ শেষ হবে সংস্কার কাজের অর্ধেক। আর বাকিটুকু শেষ হতে আগস্ট।

বিসিবির প্রাথমিক লক্ষ্য জুলাইয়ে পাকিস্তান সফর দিয়েই মিরপুরে ক্রিকেট ফেরানোর। কিন্তু সেসময়ের মাঝে সংস্কার কাজ পুরোপুরি শেষ না হলে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ দিয়েই প্রায় এক বছর পর আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরবে মিরপুরে। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন।

এ প্রসঙ্গে নিজামউদ্দিন চৌধুরী ভাষ্য, ‘সেপ্টেম্বরে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ সফর করবে। সিডিউল অনুযায়ী আগামী কোরবানি ঈদের আগে একটি টেস্ট ম্যাচ ও পরে হবে অপরটি। আমরা টার্গেট রেখেছি আগামী জুলাইয়ে পাকিস্তানের যে নির্ধারিত সফর রয়েছে সেটি দিয়েই মিরপুরে সিরিজ আয়োজনের ব্যবস্থা করবো। যদি সেটা সম্ভব না হয় অস্ট্রেলিয়া সফর দিয়েই এখানে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ (সংস্কারের পর) শুরু হবে।’

বিসিবির প্রাথমিক লক্ষ্য জুলাইয়ে পাকিস্তান সফর দিয়েই মিরপুরে ক্রিকেট ফেরানোর। ছবি: সংগৃহীত

অস্ট্রেলিয়ার আগেই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে আগামী জুলাই মাসে বাংলাদেশ সফর করবে পাকিস্তান। এই সফরে থাকবে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও একটি টি-টুয়েন্টি ম্যাচ। সেসময় মিরপুর স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ শেষ না হলে ভেন্যু হিসেবে ফতুল্লা ও চট্টগ্রামকে তৈরি রাখছে বিসিবি। এছাড়া সিলেট স্টেডিয়ামকেও বিকল্প ভেন্যু হিসেবে রাখা হচ্ছে।

এই প্রসঙ্গে নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘ম্যাচের সূচি ও ভেন্যু আমাদের বোর্ড সভায় চূড়ান্ত হয়ে থাকে। আগামী ২২ এপ্রিল বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভা নির্ধারিত আছে। সেই সভাতেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। জুলাইয়ের মধ্যে মিরপুর স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ শেষ না হলে ফতুল্লা ও চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে পাকিস্তান সিরিজের ম্যাচগুলো। সঙ্গে সিলেট স্টেডিয়ামকে বিকল্প ভেন্যু হিসেবে রাখা হবে।’

প্রিয় স্পোর্টস

Advertisements