এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে শক্ত দল গড়েছে আবাহনী। তাসকিন আহমেদ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতদের মতো তারকা রয়েছেন দলটিতে। অন্যদিকে বলতে গেলে পারটেক্সে তেমন কোনো তারকা ক্রিকেটার নেই। ভারতীয় রিক্রুট যশপাল সিং দলটির সেরা তারকা। তারপরও আবাহনীর সামনে ২৩৪ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয় পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। সাভারে তাসকিন-সাইফুদ্দিন-সাকলায়েন সজীবদের দুর্দান্ত বোলিং লাইনআপের সামনে ৭ উইকেটে ২৩৪ রান সংগ্রহ করেছে পারটেক্স। জবাবে নাজমুল হোসেন শান্তর দুর্দান্ত শতকে ৬৯ বল হাতে রেখেই সাত উইকেটের জয় নিশ্চিত করেছে আবাহনী।

বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় পারটেক্স। তাসকিনের দারুণ থ্রোয়ে মাত্র ১ রান করে রানআউট হন ইরফান শুকুর। এরপর ৫০ রানের জুটি বাঁধেন তারেক ও সাজ্জাদ। মাত্র ৩৩ বলে ৪৪ রান করা সাজ্জাদকে ফেরান পেসার সাইফুদ্দিন। দলীয় ১০৫ রানে অধিনায়ক তারেককে ফেরান সম্প্রতি জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া সানজামুল ইসলাম। ৩৩ রান করা যশপালকে ফেরান শুভাগত হোম। লোয়ারঅর্ডারে জুবায়ের আহমেদের ৫০ ও জাকারিয়া মাসুদের ২৫ রানে ভর করে শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৩৪ রান সংগ্রহ করেছে পারটেক্স।

আবাহনীর সাইফুদ্দিন ও শুভাগত হোম নেন দুটি করে উইকেট। এ ছাড়া তাসকিন ও সানজামুল নেন একটি করে উইকেট।

জবাবে শুরুটা ভালো হয়নি আবাহনীরও। ৪৩ রানের মধ্যেই উদয় কোল ও লিটন দাসের উইকেট হারিয়ে বসে দলটি। এরপর ১৫০ রানের জুটি বাঁধেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলীয় ১৯৩ রানে ৭৭ রান করে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ফিরলেও সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন শান্ত। ১০৯ বলে অপরাজিত ১০১ রান করেন বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যান। অপরপ্রান্তে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত অপরাজিত থাকেন ২৩ রানে।

Advertisements