বাংলাদেশ জাতীয় দলের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। আর টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। জাতীয় দলের আবহে একসঙ্গে খেলা হলেও কখনোই ঘরোয়া ক্রিকেটে একসঙ্গে খেলা হয়নি এ দেশসেরা দুই তারকার। দীর্ঘ দিনের এ আক্ষেপটা ঘুচল চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে। লিজেন্ড অব রূপগঞ্জের ডেরায় এক হলেন তারা।

শুরু থেকেই ধারণা ছিল দুই অধিনায়ক এক দলে খেললেও অধিনায়ক থাকবেন মাশরাফিই। কারণ বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাফল্যের চাবিকাঠিই বলা মাশরাফিকে। তার তুখোড় নেতৃত্বে হারের বৃত্তে থাকা দলটি হঠাৎই বদলে যান টাইগাররা। তাই দলকে উজ্জীবিত করতে তাকেই রূপগঞ্জের নেতার আসনে দেখা যাবে। তবে বাস্তবে ঘটেছে তার উল্টো। দলটির অধিনায়ক এখন মুশফিক।

কেন মুশফিক অধিনায়ক? মাশরাফির সাবলীল উত্তর, ‘মুশফিক অধিনায়কত্ব করছে ঠিক আছে। তাছাড়া মুশফিকের অধীনে খেলে মজাও আছে। আর আমিও একটু রিলাক্স পাচ্ছি। মুশফিকের তো টেস্টের (শ্রীলঙ্কায় টেস্ট সিরিজ) পর আর ওর অধিনায়কত্ব করা হয়নি। একটু চাঙ্গা আছে। এখন ও নেতৃত্ব দেক। আমি একটু রিলাক্স করি।’

রিলাক্স করার দারুণ সুযোগ পেয়েছেন মাশরাফি। ফিল্ডিং শেষে দলের ব্যাটসম্যানরা যখন উইকেটে ব্যাটিং করছেন তখন ড্রেসিং রুমের আশপাশে ঘুরে বেরিয়েছেন এ পেসার। ম্যাচে শেষে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকা ভক্তদের সঙ্গে ছবি তুলে ও অটোগ্রাফ দিতেও দেখা গেছে তাকে।

তবে মাঠের খেলায় রিলাক্স করতে দেখা যায়নি মাশরাফিকে। বল হাতে নেয়ার পর টানা আট ওভার বোলিং করেছেন তিনি। দারুণ নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে মাত্র ২৮ রানের বিনিময়ে তুলে নিয়েছেন মূল্যবান ২টি উইকেট। ফলে লক্ষ্য সীমার মধ্যে ব্রাদার্সকে বেঁধে রাখতে পারে রূপগঞ্জ। আর টানা বোলিংয়ে করেও স্বাভাবিক আছেন মাশরাফি।

Advertisements