অতীতে সাফল্যের মুখ দেখলেও ছিলো না ধারাবাহিকতা। জয়ের চেয়ে হারের স্বাদই বেশি পেতে হয়েছে বাংলাদেশকে। কিন্তু গত দু’বছরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এক অন্য বাংলাদেশকে দেখা গেছে। ২০১৪ সালের এশিয়া কাপ থেকেই নিজেদের প্রতি মুহূর্তে চিনিয়েছেন মাশরাফি-তামিম-মুশফিক-সাকিবরা।উপমহাদেশের পরাশক্তি ভারত-পাকিস্তান কিংবা অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা; কোনো দলই এখন আর বাংলাদেশকে ওয়ানডেতে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করার দুঃসাহস দেখায় না।

বাংলাদেশের প্রসঙ্গ এলেই সমীহ করার সুর স্পষ্ট হয়ে উঠে তাদের কণ্ঠে। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা এই সম্মান আদায় করে নিয়েছেন মাঠের পারফরম্যান্স দিয়ে। মাঠের এই ধারাবাহিক পারফরম্যান্স বজায় থাকলে ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ভালো সম্ভাবনাই রয়েছে বলে মনে করেন শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গা। বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ রানাতুঙ্গার মতে, সাকিব আল হাসানের মত প্রতিভাবান কয়েকজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে পাশে পেলে ২০২৩ বিশ্বকাপ জিতেও যেতে পারে বাংলাদেশ।

এ প্রসঙ্গে কলম্বোতে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে লঙ্কান এই কিংবদন্তি বলেন, ‘বাংলাদেশ যেভাবে খেলছে, তাতে ভালো সম্ভাবনা রয়েছে। ওদের কিছু তরুণ ক্রিকেটার দরকার। ‘এ’ দলের প্রচুর খেলা থাকতে হবে। ওরা ঠিক পথেই আছে। ২০২৩ বিশ্বকাপের এখনও ছয় বছর বাকি। তাই অনূর্ধ্ব-১৯ বা অনূর্ধ্ব-২৩ দলের সেরা ক্রিকেটারদের জাতীয় দলের সঙ্গে না মিশিয়ে আলাদাভাবে তৈরি করা উচিত। ওদের নিয়ে ঠিকঠাক পরিকল্পনা করা হলে উপমহাদেশে বিশ্বকাপ জেতা খুব কঠিন হওয়ার কথা না। আমি নিশ্চিত, সে সময়ে বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়াড় দরকার হবে। তরুণ খেলোয়াড়দের পাশে থাকার জন্য ওদের সে সময়ে থাকতে হবে। সাকিব আল হাসানের মতো কয়েক জন প্রতিভাবান ক্রিকেটারকে নতুন প্রজন্মের জন্য মাঠে থাকতে হবে।’

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে তুলনা করলে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে এখন কোথায় রাখবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে রানাতুঙ্গা বলেন, ‘ওরা সত্যিই অনেক উন্নতি করেছে। তিন বছর আগে বলেছিলাম যে, আমাদের ক্রিকেট যেভাবে এগোচ্ছে, তাতে খুব দ্রুতই আমরা বাংলাদেশের কাছেও হারব। তা এই সিরিজে হয়েও গেল। বিশেষ করে টেস্ট সিরিজ দেখে মনে হলো বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটেও ওরা বেশ উন্নতি করেছে। ওদের কমিটমেন্ট দেখে আমি মুগ্ধ। এই বাংলাদেশে গিয়ে আমিও খেলে এসেছি। ১৯৮৮ সালে প্রথম মোহামেডানের হয়ে খেলেছি। এরপর বিভিন্ন সময়ে গিয়েছি আরো বেশ কয়েকবার। সুতরাং ভাবতে ভালোই লাগে যে বাংলাদেশের ক্রিকেট উন্নয়নে শ্রীলঙ্কানদেরও অবদান আছে।’

সদ্যই শেষ হওয়া বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজেও চোখ ছিলো রানাতুঙ্গার। তার মতে, টেকনিকে কোনো সমস্যা নেই তামিম-মুশফিকদের, ‘আমি মনে করি, টেকনিকের দিক থেকে ওদের কোনো সমস্যা নেই। এটা পুরোপুরি মানসিক ব্যাপার। বাংলাদেশের এমন একজনকে লাগবে, যে ওদের মানসিকভাবে ঠিক জায়গায় রাখবে। ক্রিকেটের দিক থেকে ওরা খুব ভালো। ব্যাটসম্যানদের যথেষ্ট শট আছে, ওরা খুব প্রতিভাবান। (সমস্যাটা) পুরোপুরি এখানে (নিজের মাথার দিকে ইঙ্গিত করে)। এটা ওদের খুব দ্রুত কাটিয়ে উঠতে হবে।’

সূত্র: ডেইলি স্টার

Advertisements