বয়স চলছে ৩৩। তার ওপর আবার নি গার্ড পড়ে নামতে হয় মাঠে। সময়টা বিদায় বলারই। কিন্তু মাশরাফি বিন মুর্তজা এভাবে টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়ে নেবেন কেউ-ই এমনটি ভাবেননি। যে কারণে মাশরাফির অবসরের ঘোষণায় উত্তাল হয়ে উঠেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গন।

একে একে বেরিয়ে আসছে মাশরাফির অবসর নেয়ার পেছনের কারণ। যেখানে বড় করে নাম বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহের। তার চাওয়ার বলীই হতে হয়েছে মাশরাফিকে। সময়টা বুঝে ফেলায় সম্মান নিয়েই অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মাশরাফি।

তবে এমন বিদায় ভালোভাবে নিতে পারেননি মাশরাফির জাতীয় দলের সতীর্থসহ বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটাররা। অবাক সাধারণ ক্রিকেট ভক্তরাও। তবে মাশরাফির সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সহ-সভাপতি মাহবুব আনাম।

মাশরাফির সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে মাহবুব আনাম বলেন, ‘মাশরাফির সিদ্ধান্তকে সম্মানের সাথে নিতে চাই। মাশরাফি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য একটা স্তম্ভ। বাংলাদেশ ক্রিকেট আজকের যে অবস্থানে এসেছে সেখানে মাশরাফির অবদান প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। আমি সব সময় বলেছি মাশরাফি বড় হৃদয়ের ক্রিকেটার। তার সমতুল্য খেলোয়াড় আমি আজ অবদি বাংলাদেশ ক্রিকেটে দেখিনি।’

মাশরাফির জায়গা পূরণ করাটা তাই সহজ হবে না বলে মনে করেন তিনি, ‘তার জায়গা পূরণ করা বাংলাদেশ দলের পক্ষে সহজ হবে না। ওর মতো খেলোয়াড় এক যুগে একটার বেশি আসে না। এ সিদ্ধান্ত তার একক। সে যে সিদ্ধান্ত নেবে সেটাই বড়। অন্য কাউকে জায়গা করে দেওয়ার জন্য সে সরে গেছে। এরকম মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে জাতীয় দলের অন্য ক্রিকেটারকে সরে যেতে আমি দেখিনি। হ্যাটস অফ টু হিম।’

অবসরের ঘোষণা দেয়ার পরও মাশরাফি যেভাবে শেষ ম্যাচে নেতৃত্বে দিয়েছেন সেটার প্রশংসা করে মাহবুব আনাম বলেন, ‘আমি তার সিদ্ধান্তে কোনো কমেন্ট করতে চাই না। সে মাঠের ছেলে। সে যেভাবে কালও দলকে নেতৃত্ব দিয়েছে সেখানে কোনো জায়গায় কোনো ত্রুটি পাবেন না। যে কোনো অবস্থায় সে যেভাবে মাঠে থাকে আমি মনে করি না বিশ্বের অন্য কোনো স্পোর্টসম্যান এটা করতে পারে।’

Advertisements