মুশফিকুর রহিমকে সরিয়ে ২০১৫ সালে যখন মাশরাফি বিন মুর্তজাকে বাংলাদেশের সীমিত ওভারের অধিনায়ক করা হয়, কথা উঠেছিল দুজনের সম্পর্ক খারাপ হয়ে যাবে। কিন্তু তারা দুজন এসব কথা কানেই তোলেননি। মাঠে দুজনকে দেখা গেছে কাঁধে কাঁধ রেখে লড়তে। দলের প্রয়োজনে মাশরাফির সাথে মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুশফিকও। মাশরাফির হঠাৎ টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরে কিছুটা হতাশ হলেও, এটাই স্বাভাবিক মেনে নিয়েছেন টেস্ট অধিনায়ক।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে টস করতে নেমেই হঠাৎ এই ফরম্যাটে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মাশরাফি। ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের অনেক ক্রিকেটাররাই বিভিন্নভাবে তাদের ভালোবাসা ও সম্মান জানিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সফল অধিনায়ক মাশরাফিকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের ভেরিফাইড পেজে এক বিদায়ী বার্তা দিয়েছেন মুশফিকও।

ছবি: সংগৃহীত

মাশরাফিকে উদ্দেশ্য করে এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান লিখেছেন, ‘সব ভালো ব্যাপারগুলিই আসে এবং জীবন থেকে চলে যায়। এটাও সম্ভবত তেমনই একটি। মাশরাফি ছাড়া বাংলাদেশ দল ভাবা আমাদের সবার জন্যই কষ্টকর। আপনি একজন সত্যিকারের যোদ্ধা। আমি নিশ্চিত, আপনার নেতৃত্বে খেলা ক্রিকেটাররা অনেক গর্বিত। এটা আমাদের জন্য সত্যিই সম্মানের। ধন্যবাদ জানাতে চাই, সেসব সময়ের জন্য যখন আমরা মাঠে হাল ছেড়ে দিতাম আর আপনি আমাদের উৎসাহ দিতেন। স্বাভাবিকভাবেই আমরা অনেক হতাশ আমরা আপনাকে টি-টোয়েন্টি জার্সিতে মিস করবো। ধন্যবাদ ম্যাশ।’  

Advertisements