মঙ্গলবার ম্যাচের আগে দুপুরেই পরিবারের সবার সঙ্গে কথা বলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। প্রথমে সিনিয়র ক্রিকেটার ও পরে দলের সবাইকেই জানান। এরপর টস হওয়ার সময় টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের ঘোষণা দেন বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল এই অধিনায়ক।

আচমকাই মাশরাফির এমন সিদ্ধান্তে হতবাক বাংলাদেশ ক্রিকেটাঙ্গন। বিস্মিত হয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশও। ম্যাচ চলাকালীন সময় ওয়ালশ বলেন, ‘আমি তার অবসরের খবর শুনে বিস্মিত হয়েছি। এখন পর্যন্ত দারুণ খেলছে সে। নিশ্চয় ভেবেচিন্তেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই কিংবদন্তি বোলার আশাবাদী দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জিতেই মাশরাফিকে বিদায় জানাবে বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এ প্রসঙ্গে ওয়ালশ লেখেন, ‘অনেক শুভ কামনা রইলো তোমার জন্য। ক্যাপ্টেন ম্যাশ, তুমি সত্যিকারের একজন যোদ্ধা। আশা করছি তোমার জন্য শেষ ম্যাচটি আমরা জিতবো। ’

ওয়ালশের টুইট।

২০০১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর ১৬ বছর ধরে খেলে চলেছেন মাশরাফি। বর্তমানে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক তিনি। মাশরাফি ১৭২টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ২২৫টি উইকেট নিয়েছেন। ৩৬ টেস্টে ৭৮টি উইকেট নিয়েছেন। অন্যদিকে ৫২ টি-টোয়েন্টি খেলে ৩৯টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে টেস্টে তার রান ৭৯৭, ওয়ানডেতে ১৫৫৬ এবং টি-টোয়েন্টিতে ৩৬৮।

Advertisements