ম্যাচ ফিক্সিং, স্পট ফিক্সিং; এসব ক্রিকেটের সঙ্গে লেগে আছে অনেক আগেই। অনেক তারকা ক্রিকেটাররা এতে জড়িয়ে ক্যারিয়ারকে ঠেলে দিয়েছেন অনিশ্চয়তায়। উদাহরণ অসংখ্য। আন্তর্জাতিক কিংবা ঘরোয়া লিগ হোক; কিছু চক্র এ নিয়ে ব্যস্ত। ক্রিকেটকে কলঙ্কিত করাই যাদের উদ্দেশ্য।

ক্রিকেটে এবার ‘নতুন’ ফিক্সিংয়ের আবির্ভাব ঘটলো। নাম তার ‘পিচ ফিক্সিং’। পুনে টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার কাছে প্রায় আড়াই দিনে হেরে (৩৩৩ রানে) যাওয়ার পর এই শব্দটি নতুন মাত্রা পেয়েছে। দেশটির সাবেক ক্রিকেটাররা এ নিয়ে সোচ্চার। তাদের সঙ্গে যোগ দিলেন বিসিসিআইয়ের সাবেক সচিব অজয় শিরকেও।

অজয়ের আরেকটি পরিচয়- তিনি মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতিও। এই মহরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামেই সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। যে মাঠের পিচ নিয়ে গোটা ভারতে চলছে সমালোচনা।

পুনের ‘পিচ ফিক্সিং’ হয়েছে বলে দাবি করে ঘটনার তদন্তের দাবি জানিয়েছেন অজয়। তার ভাষ্য, ‘এখন বোর্ড চালাচ্ছেন সুপ্রিম কোর্টের দ্বারা নিযুক্ত প্রশাসকরা। এর আগেও পিচ নিয়ে নানা বিতর্ক হয়েছে। ফলে এখনই মোক্ষম সময় যে এর গভীরে প্রবেশ করে সমস্যা সমাধানের। আমি চাই- এই ঘটনায় তদন্ত করে দোষীদের শাস্তি দেয়া হোক।’

Advertisements