পিএসএলের ফাইনাল লাহোরে আয়োজনের পরিকল্পনাটা পাগলামি: ইমরান খান

 নিরাপত্তা নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক থাকলেও পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) দ্বিতীয় আসরের শুরু থেকেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিলো লাহোরে অনুষ্ঠিত হবে এর ফাইনাল ম্যাচটি। এ নিয়ে আলোচনায় বসে পিএসএলের আয়োজক কমিটি এবং ফ্রাঞ্চাইজি মালিকরা। সভা শেষে সিদ্ধান্ত হয়, বিদেশি ক্রিকেটাররা খেলুক আর না খেলুক, পিএসএলের দ্বিতীয় আসরের ফাইনালের ভেন্যু লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়াম।যদিও ব্যাপারটি দেশটির সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় ঝুলে আছে এখনও। ক্রিস গেইল, কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়াবর্ধনের মত অনেক তারকা বিদেশি ক্রিকেটারই ফাইনাল খেলতে লাহোর যেতে অপারগতা জানিয়ে দিয়েছে। তবুও পিএসএলের আয়োজক কমিটি এবং পিসিবি চাইছে লাহোরেই হোক ফাইনাল। এরই মধ্যে বোমা ফাটালেন পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান।

পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়কের মতে, লাহোরে পিএসএলের ফাইনাল আয়োজন করা স্রেফ পাগলামি! দেশটির এক টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন পাকিস্তানের এই কিংবদন্তি অলরাউন্ডার। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পিএসএলের ফাইনাল লাহোরে আয়োজনের পরিকল্পনাটা আমার কাছে পাগলামি মনে হচ্ছে।’

এছাড়া ফাইনাল লাহোরে হলে বেশিরভাগ বিদেশি খেলোয়াড়ের না খেলার সম্ভাবনা আছে। বিদেশি খেলোয়াড় ছাড়া ফাইনাল লাহোরে হলে সেটি পাকিস্তানের ক্রিকেটে কোনো কাজে আসবে না বলে মনে করেন ইমরান খান। আর ফাইনালের সময় যদি খারাপ কোনো ঘটনা ঘটে, তাহলে পাকিস্তানের ক্রিকেট দশ বছর পিছিয়ে যাবে বলেও মত ইমরানের, ‘সেখানে যদি খারাপ কোনো কিছু ঘটে তাহলে এটা পাকিস্তানের ক্রিকেটকে আরও দশ বছর পিছিয়ে নিয়ে যাবে।’

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একরকম নিষিদ্ধ। মাঝে শুধু জিম্বাবুয়ে সীমিত ওভারের সিরিজ খেলে গেছে। নিজেদের আবারও নিরাপদ প্রমাণ করতেই পিসিএলের ফাইনাল লাহোরে করার ঘোষণা দেয় পিসিবি। চলতি মাসের শুরুর দিকে লাহোরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৩ জন মানুষ নিহত হওয়ার পরও নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় দেশটির সর্বোচ্চ ক্রীড়া সংস্থাটি।

পাকিস্তানের রাজনৈতিক দল তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রধান ইমরানের মতে, এমন আয়োজন কোন শুভবার্তা বয়ে আনবে না। এ প্রসঙ্গে ইমরান খান বলেন, ‘পিএসএল এর ফাইনাল পাকিস্তানে আয়োজনের পয়েন্টটা কি? এটা তো কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচও নয়। আমার মতে এটা ভয়ঙ্কর চিন্তা। এই ম্যাচ উপলক্ষে হয়তো আমারা আর্মি ডেকে এনে, রাস্তা অবরোধ করে খেলা আয়োজন করব। তাই এই প্রক্রিয়া কোন শুভবার্তা দিবে না। এই ধরনের পরিস্থিতির মধ্যে আমরা কী শান্তির বার্তা পাঠাব।’

পিসিএলের প্রথম আসরের পুরোটাই হয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতে। দ্বিতীয় আসরেরও ফাইনাল বাদে পুরোটা আরব আমিরাতেই হচ্ছে। আগামী পাঁচ মার্চ পিএসএলের দ্বিতীয় আসরের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্রঃ এনডিটিভি

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: