টেস্ট মর্যাদা ‘স্থায়ী’ কিছু নয়

আইসিসির স্থায়ী সদস্যপদ এখন থেকে প্রতি পাঁচ বছর পরপর মূল্যায়ন করার প্রস্তাব করা হয়েছে। ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো জানিয়েছে, সদস্য দেশগুলোর ক্রিকেট বোর্ডের কাছে পাঠানো এক ই-মেইলে আইসিসি টেস্ট মর্যাদা পুনর্মূল্যায়নের ব্যাপারটি ব্যাখ্যা করে বলেছে, পূর্ণ সদস্যপদ কোনো দেশের জন্যই স্থায়ী কিছু নয়। পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে একটি পূর্ণ সদস্য দেশ সহযোগী সদস্য দেশে পরিণত হতে পারে। ই-মেইলে আরও জানানো হয়েছে, এখন থেকে আইসিসিতে অনুমোদিত সদস্য বলে কিছু থাকছে না। টেস্ট মর্যাদা পাওয়া দেশগুলোর পূর্ণ সদস্যপদ প্রতি পাঁচ বছর আর সহযোগী সদস্য দেশগুলোকে প্রতি দুই বছর পরপর মূল্যায়ন করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সম্প্রতি দুবাইয়ে আইসিসির নির্বাহী কমিটির সভায় সদস্য দেশগুলোর মধ্যে জবাবদিহি সৃষ্টির লক্ষ্যে এ ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়।
আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের মতো নতুন দেশগুলোকে টেস্ট খেলার সুযোগ করে দেওয়ার লক্ষ্যেই এমন সিদ্ধান্ত হচ্ছে। সেই সঙ্গে টেস্ট ক্রিকেটে সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে না পারা জিম্বাবুয়ে, এমনকি ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো সদস্যদের ওপর চাপও সৃষ্টি করাই আইসিসির এই প্রস্তাবের লক্ষ্য।
এ ব্যাপারে একটি মূল্যায়ন কমিটিও (মেম্বরশিপ কমিটি) গঠন করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। সেই কমিটি পূর্ণ ও সহযোগী সদস্য দেশগুলোকে মূল্যায়ন করে নেবে সিদ্ধান্ত। এই কমিটিই আইসিসির সহযোগী সদস্যপদের আবেদন যাচাই-বাছাই করে নতুন দেশকে সদস্যপদ দেওয়া আর বাজে পারফরম্যান্সের কারণে যেকোনো পূর্ণ সদস্য দেশকে সহযোগী সদস্য দেশ হিসেবে অবনমিত করার সিদ্ধান্ত নেবে।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s