বিশ্বের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর মধ্যে আর্থিক দিক থেকে এখন ৫ম স্থানে রয়েছে এদেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সম্প্রতি একটি প্রতিবেদনে এমন তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের উপরে আছে যেসব বোর্ড সেগুলো হল যথাক্রমে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই), ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ), ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) এবং পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

ধনী হওয়ার দৌড়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড পেছনে ফেলেছে ‘বিগ থ্রি’র অন্যতম প্রধান অংশ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)-কেও। শুধু তা-ই নয়, বিসিবির বার্ষিক আয় সিএ-এর দ্বিগুণেরও বেশি। এদেশের ক্রিকেটের জন্য সমর্থকদের ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবেই মূলত আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

এক নজরে টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর নিজস্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থার বার্ষিক আয়

১. বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন্ডিয়া- ২৯৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার

২. ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা- ৭৯ মিলিয়ন ইউএস ডলার                                                                     ৩. ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড- ৫৯ ইউএস ডলার                                                             ৪. পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড- ৫৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার                                                                   ৫. বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড- ৫১ মিলিয়ন ইউএস ডলার                                                                 ৬. জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট- ৩৮ মিলিয়ন ইউএস ডলার

৭. ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া- ৩৮ মিলিয়ন ইউএস ডলার                                                                         ৮. শ্রীলংকা ক্রিকেট- ২০ মিলিয়ন ইউএস ডলার                                                                               ৯. ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড- ১৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার                                                               ১০. নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট- ৯ মিলিয়ন ইউএস

Advertisements