হায়দ্রাবাদে ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায়ই ২০৮ রানের বড় ব্যবধানে হেরে গেল বাংলাদেশ। ৫ম দিনের দ্বিতীয় ইনিংসেই শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশের ইনিংস। ৪৫৯ রানের টার্গেটে দ্বিতীয় ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৫০ করতে সমর্থ হয় সফরকারীরা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ হাফসেঞ্চুরি আসে মাহমুদউল্লাহ’র ব্যাট থেকে।

পঞ্চম দিনে নেমে শুরুতেই সাকিব আল হাসানের বিদায় ঘটে। রবিন্দ্র জাদেজার বলে চেতশ্বর পুজারাকে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ২২ রানে ফেরেন তিনি। দারুণ খেলতে থাকা মুশফিকুর রহিম রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে তুলে মারতে গিয়ে আউট হন। ব্যক্তিগত ২৩ রান করেন প্রথম ইনিংসের এ সেঞ্চুরিয়ান। এরই মধ্যে ক্যারিয়ারের ১৩তম টেস্ট ফিফটি তুলে নেন মাহমুদউল্লাহ। মধ্যাহ্ন বিরতির আগে দলীয় দুইশ’ পার করে বাংলাদেশ।

মধ্যাহ্ন বিরতি থেকে ফিরে আশা জাগানিয়া ব্যাটিং করছিলেন সাব্বির রহমান। তবে ইশান্ত শর্মার বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে যান ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান। ৬১ বলে তিনটি চার ও একটি ছক্কায় ২২ রান করেন সাব্বির। সাব্বিরের পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। সেট ব্যাটসম্যান হয়েও ইশান্তের বাউন্সি বলে ভুবেনশ্বর কুমারকে ক্যাচ তুলে দেন রিয়াদ। ১৪৯ বলে সাতটি চারে দলীয় সেরা ৬৪ রান করেন রিয়াদ।

প্রথম ইনিংসে হাফসেঞ্চুরি করার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও দারুণ ব্যাটিং করেন মেহেদি হাসান মিরাজ। তবে দলীয় ২৪২ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৩ রানে রবিন্দ্র জাদেজার তৃতীয় শিকারে পরিণত হন মিরাজ। উইকেরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহার ক্যাচে পরিণত হওয়ার আগে ৬১ বল মোকাবেলা করেন। ছিল চারটি বাউন্ডারির মার।

জাদেজার চতুর্থ শিকার হয়ে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তাইজুল ইসলাম। ছয় রানের মাথায় তুলে মারতে গিয়ে লোকেশ রাহুলের ক্যাচে আউট হন তিনি। আর শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে তাসকিন আহমেদ এক রানে অশ্বিনের বলে ফিরে গেলে হার নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের।

ভারতীয় বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ চারটি করে উইকেট পান অশ্বিন ও জাদেজা। আর বাকি দুটি উইকেট ইশান্ত শর্মার দখলে যায়।

এর আগে বাংলাদেশকে জয়ের জন্য ৪৫৯ রানের বিশাল টার্গেট দেয় ভারত। স্বাগতিকরা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে চেতশ্বর পুজারার হাফসেঞ্চুরিতে চার উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান করে। প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসও ঘোষণা করে ভারত।

প্রথম ইনিংসে বিরাট কোহলির ডাবল সেঞ্চুরিতে ছয় উইকেটে ৬৮৭ রান করে ইনিংস ঘোষণা করেছিল ভারত। পরে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের সেঞ্চুরিতে টাইগাররা নিজেদের প্রথম ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩৮৮ রান করে। ২৯৯ রানের লিড নিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে স্বাগতিকরা।


সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ভারত-৬৮৭/৬ ডিক্লে. ও ১৫৯/৪ ডিক্লে।
বাংলাদেশ-৩৮৮ ও ২৫০ (১০০.৩ ওভার)

Advertisements