জুনায়েদ সিদ্দিকীর আক্ষেপ

 

ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ১৫০ পেরিয়ে হয়তো ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির স্বপ্নই দেখছিলেন জুনায়েদ সিদ্দিকী। প্রথম শ্রেণি ক্যারিয়ারের ১১তম সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর ব্যাট হাতে সাবলীলভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিলেন বিসিবি নর্থ জোনের টপ অর্ডার এই ব্যাটসম্যান। কিন্তু খেই ধরে রাখতে পারেননি বাংলাদেশ জাতীয় দলের এক সময়ের নিয়মিত এই সদস্য।

ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক লংগার ভার্সনের বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ১৮১ রান করে থামতে হয় তাকে। ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের পেসার শহিদুল ইসলামের এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফিরতে হয় বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যানকে। তবে ইনিংসটি লংগার ভার্সনের মেজাজেই খেলেছেন জুনায়েদ।

১৮১ রানের ইনিংসটি খেলতে ২৮১ বল খরচা করেছেন তিনি। কোনো ছক্কা না থাকলেও চার মেরেছেন ২০টি। জুনায়েদের ইনিংসে ভর করে তার দল বিসিবি নর্থ জোনও বড় সংগ্রহ পেয়েছে। সবকটি উইকেট হারিয়ে প্রথম ইনিংসে ৫০২ রান তুলেছে জহুরুল ইসলাম অমির দল। জুনায়েদের পর নাসির হোসেন ৫৫, ধীমান ঘোষ ৬১, আরিফুল হক ৫০ ও সোহরাওয়ার্দী শুভ ৪৬ রান করেন।

রোববার ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের বিপক্ষে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরুটা ভাল ছিল না বিসিবি নর্থ জোনের। দলীয় ৮ রানেই ফিরে যান ওপেনার নাজমুল হোসেন। এরপর শুরু হয় জুনায়েদের ব্যাটিং শো। অন্য ব্যাটসম্যানরা সেট হয়ে ইনিংস বড় না করতে পারলেও জুনায়েদ তুলে নেন সেঞ্চুরি।

মিলতে পারতো প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির দেখাও। কিন্তু শেষপর্যন্ত গিয়ে থামেন ১৮১ রানে। এটা জুনায়েদের প্রথম শ্রেণি ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেরা ইনিংস। প্রথম শ্রেণিতে বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যানের সেরা ইনিংস ১৯৩ রানের। এবার খুব কাছেও গিয়েও নিজের সেরা ইনিংস পেরনো হলো না সর্বশেষ ২০১২ সালে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলা জুনায়েদের।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: