মোস্তাফিজুর রহমান দলে থাকা মানে বাংলাদেশের বোলিং শক্তি এক লাফে বেড়ে যাওয়া। তাঁকে পেলে দলও বাড়তি আত্মবিশ্বাস পায়। কিন্তু মোস্তাফিজকে ছাড়াই তাঁর আরেক ‘হোম’ হায়দরাবাদে টেস্ট খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। প্রশ্ন উঠেছে, মোস্তাফিজের সমস্যাটা আসলে কোথায়?
ধূমকেতুর মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবির্ভাব হয়ে, আইপিএল-কাউন্টি জয় করে হঠাৎই চোটে পড়েন এই কাটার মাস্টার। এরপর অস্ত্রোপচার, পুনর্বাসন—দীর্ঘ বিরতি শেষে নিউজিল্যান্ড সফরে ফিরেছিলেন। কিন্তু এরপর নিজেই দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। ফিজিও অবশ্য জানিয়েছিলেন কোনো চোট তিনি দেখছেন না। কিন্তু মোস্তাফিজ বল করতে স্বস্তি পাচ্ছেন না।
বাংলাদেশ দলের জন্য অমূল্য সম্পদ। তা ছাড়া সামনে দীর্ঘ সূচি। মোস্তাফিজকে নিয়ে তাই কোনো ঝুঁকি নিতে চান না নির্বাচকেরা। ধীরে ধীরে তাঁকে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটে মানিয়ে নেওয়ার জন্য আপাতত বিসিএলের পরের রাউন্ডে খেলতে পাঠানো হবে। এরপর দেখা হবে উন্নতি।
আজ প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘স্বাস্থ্যগত ওর কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু ওর স্কিল আর ফিটনেসে এখনো অনেক কাজ করতে হবে। মোস্তাফিজ আমাদের সম্পদ। ওকে বিসিএলে একটা ম্যাচ খেলিয়ে দেখতে হবে কী অবস্থা।’
মোস্তাফিজ প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে ৪ ফেব্রুয়ারি ইসলামি ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে চার দিনের ম্যাচটি খেলবে। আপাতত বাংলাদেশ দল তাঁকে শ্রীলঙ্কা সফরে পুরো ফিট অবস্থায় চাইছে।

Advertisements