বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চতুর্থ আসরে নিজের জাত চিনিয়েছেন মেহেদী মারুফ। ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে ব্যাট হাতে আলো ছড়িয়েছেন টুর্নামেন্ট জুড়ে। শুধু তাই নয়, বিপিএলে দিয়ে নজরে এসেছেন নির্বাচকদের, সুযোগ হয়েছে জাতীয় দলের সাথে অস্ট্রেলিয়ায় ক্যাম্পে অংশ নেয়ার।

২০০৬ সাল থেকে প্রথম শেণির ক্রিকেট খেলছেন ২৮ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। কিন্তু আশ্চর্য হলেও সত্যি মেহেদী মারুফ কখনও বিশ্বাস করেননি তিনি খেলতে পারেন কিংবা তিনিও জাতীয় দলে খেলার যোগ্যতা রাখেন। প্রিয়.কমের সঙ্গে আলাপকালে এমনটাই জানিয়েছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

এখনও জাতীয় দলের জন্য বিবেচনায় না আসার কারণ হিসেবে নিজেকে দায়ী করেন মেহেদী, ‘অন্য কোনো কারণ নেই। সত্যি কথা বলতে কখনও সেভাবে চাইনি। আমি যে খেলা পারি এটা কখনও মনে হয়নি। কখনও বিশ্বাস করিনি আমিও জাতীয় দলে খেলতে পারি।’

বিপিএল খেলে বিশ্বাস পাল্টেছে জানিয়ে মারুফ বলেন, ‘বিপিএল খেলার পরে আমার প্রত্যাশা সম্পূর্ণ পাল্টে গেছে। এবারের আসরে প্রথম তিনটা ম্যাচ খেলে আমার ধারণা পরিবর্তন এসেছে। বিশ্বাস করেছি, আমারও জাতীয় দলে খেলার যোগ্যতা আছে। এখন আমি অনেক আত্মবিশ্বাসী।’

বিপিএলের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে পারফরম্যান্সে উন্নতি আনতে চান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটের ব্যাপারটা হচ্ছে অভিজ্ঞতা অর্জন করা, অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের থেকে টিপস নেওয়া এবং সেগুলো কাজে লাগিয়ে ভালো করা। বিপিএলের দেশি ক্রিকেটারদের পাশাপাশি অনেক বিদেশি ক্রিকেটারদের সাথে খেলতে পেরেছি। এখানে যে অভিজ্ঞতা হয়েছে সেগুলো কাজে লাগিয়ে পারফরম্যান্সে আরও উন্নতি করতে চাই। এটা ঠিকঠাক করতে পারলে অবশ্যই ভালো কিছু করতে পারবো।’

শুধু বিপিএল নয়, অভিজ্ঞতা হয়েছে জাতীয় দলের সাথে অস্ট্রেলিয়ায় ক্যাম্প করার সুবাদেও অভিজ্ঞতা হয়েছে বলেও জানান মেহেদী। বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে অনেক মাঠে অনুশীলন করার সুযোগ পেয়েছি। কোচের সাথে অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পেরেছি, প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে না পারলেও জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সাথে ড্রেসিংরুম শেয়ার করতে পেরেছি। জাতীয় দলের পরিবেশ কেমন হয় তা জানতে পেরেছি। সব মিলিয়ে অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে।’

দেরি করে উপলব্ধি হলেও কঠোর পরিশ্রম করে জাতীয় দলে জায়গা করে নিতে চান মারুফ, হাতে বেশি সময় নেই। এ বছর এবং আগামী বছর আমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। ইতিমধ্যে জাতীয় দলের সাথে ক্যাম্প করার সুযোগ পেয়েছি। বিপিএলে ভালো করায় নির্বাচকরা আমাকে নিয়ে চিন্তা করেছে বলেই আমাকে সুযোগ দিয়েছে। আমি চাচ্ছি ভবিষ্যতে আরও ভাল পারফরম্যান্স করতে যেন আমাকে নিয়ে দলের নির্বাচকরা আরও ভালোভাবে চিন্তা করেন। সেজন্য খুব পরিশ্রম করবো।

Advertisements