ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিতে সৌম্যর সঙ্গে ইনিংস উদ্বোধনের অভিজ্ঞতা আছে তামিমের। টেস্টে তরুণ সতীর্থর কাছ থেকে স্বাভাবিক ক্রিকেট দেখতে চান তিনি।

“যদি সৌম্য খেলে এবং ওপেন করে, তাহলে নিজের মতোই খেলা উচিত। ওভাবে খেলে টেস্টেও ভালো করার সামর্থ্য ওর আছে। যে ধরনের ব্যাটিং শেষ দুটি ইনিংসে করেছে, আমি নিশ্চিত ওকে দারুণ আত্মবিশ্বাস দিয়ছে। যদি খেলে আমি নিশ্চিত, নিজের মতোই খেলতে ভালোবাসবে।”

নিজেকে ফিরে পাওয়ার লড়াইয়ে থাকা সৌম্য শেষ দুটি টি-টোয়েন্টিতে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে করেন ৩৯ ও ৪২ রান।

২০১৫ সালের জুনে নিজের তিন টেস্টের শেষটি খেলেন সৌম্য। এই সময়ে খুব বেশি প্রথম শ্রেণির ম্যাচও খেলার সুযোগ হয়নি তার, ব্যাটিং অর্ডারও ছিল না সুস্থির। কখনও তিন নম্বরে ব্যাট করছেন, কখনও খেলেছেন মিডলঅর্ডারে।

টেস্ট মিলিয়ে নিজের শেষ ৯টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচের মাত্র একটিতে ইনিংস উদ্বোধন করেন সৌম্য। ভারত ‘এ’ দলের বিপক্ষে সেই ম্যাচে প্রথম ইনিংসে গোল্ডেন ডাকের পর দ্বিতীয় ইনিংস ফিরেন ১৯ রান করে।

টেস্টে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি সৌম্য। ২৩ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ২১.৪০ গড়ে করেছেন ১০৭ রান। সর্বোচ্চ ৩৭। পরিসংখ্যান উজ্জ্বল করার অপ্রত্যাশিত সুযোগ তার সামনে।

শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে শুরু হবে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

Advertisements