হাতুরুসিংহের সমালোচনায় নাখোশ সুজন

 

বাংলাদেশ দলের কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহকে নিয়ে চলমান বিতর্কে নাখোশ বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। তার মতে নিজের কাজ সম্পর্কে খুব ভালো করেই জানেন হাতুরুসিংহে।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে লেগ স্পিনার তানভীর হায়দার ও অলরাউন্ডার শুভাগত হোমকে দলে রাখা ও নাসিরকে না রাখায় সাবেক ক্রিকেটার-সমর্থকদের মধ্যে সমালোচনার জন্ম হয়। আর এই সমালোচনার বেশিরভাগই কোচ হাতুরুসিংহকে নিয়ে।

তবে কোচকে নিয়ে সমালোচনার জবাবে বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘হাতুরুসিংহে কোয়ালিটি কোচ। তিনি নিজের কাজ ভালো করেই জানেন।’

সুজনের মতে, কাকে খেলানো হচ্ছে বা কাকে খেলানো হবে সেই ব্যাপারটা কোচের উপর ছেড়ে দেওয়াই ভালো।

মাহমুদ বলেন, ‘আমি মনে করি, চান্দিকা তার নিজের কাজটা খুব ভালো জানেন। এর আগেও সে বেশকিছু এক্সপেরিমেন্ট করেছে। এটা আসলে আমাদের জাতিগত স্বভাব যে যখন আমরা ভালো করি তখন অনেকেই মুখ লুকিয়ে ফেলি, কথা বলি না। যখন দল খারাপ করে, তখন মানুষ খুঁজে বের করে কীভাবে দলটাকে টেনে আরও নিচে নামানো যায়। আমাদের সাবেক কিছু ক্রিকেটারও কোচের দোষ খুঁজে বের করছেন। কিন্তু চান্দিকার কোয়ালিটি নিয়ে যদি তারা প্রশ্ন তোলেন, তাহলে বলতে হয় যে তারা নিজেরাই বোকার মতো কথা বলছেন।’

বাংলাদেশ দলের সাবেক এই ম্যানেজার আরও বলেন, ‘চান্দিকা দারুণ একজন কোয়ালিটি কোচ, এবং উনি কি করছেন সেটা উনি জানেন। উনার প্ল্যানিংগুলা খুব ভালো হয়। আর তানভীরকে কেন খেলানো হয়েছে, অমুককে খেন খেলানো হয়নি – আমার মনে হয় এটা কোচের উপরেই ছেড়ে দেয়া উচিত। টিম ম্যানেজমেন্ট আছে, এটা তাদের দায়িত্ব, সবার দায়িত্ব নয়। আমি যেহেতু দলের সাথে নেই, তাই আমারও কাকে খেলাবে বা কাকে খেলাবে না এই ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করা উচিত নয়।’

এছাড়াও এমন সমালোচনা খেলোয়াড়দের উপরও একটি বাড়তি চাপ সৃষ্টি করে বলে মনে করেন সুজন।

তিনি বলেন, ‘সমালোচনাটা যৌক্তিক হলেই ভালো হয় বলে আমি মনে করি। কারণ এভাবে যদি ঢালাওভাবে কথা বলেন সবাই, তাহলে খেলোয়াড়দের উপর একটা বাড়তি চাপ এসে পড়ে। আমরা সচরাচর ভালো কোচ পাই না। নামকাওয়াস্তে অনেক বড় বড় কোচ এসে আমাদের এখানে ঘুরে গেছে, কিন্তু সেই কোচরা কিন্তু আমাদেরকে সাফল্য এনে দেননি। সাফল্য এনে দিয়েছেন চান্দ্রিকা, এটা আমাদের মনে রাখতে হবে। বাংলাদেশ দলকে পরিবর্তন করার পেছনে তার অবদান অপরিসীম। অবশ্যই খেলোয়াড়রা সবার আগে, তাদের পারফরম্যান্সের জন্যই বাংলাদেশ জেতে। কিন্তু একটা দল বানানো চাট্টিখানি কথা না। একটা সিরিজ হারাতেই এত প্রশ্ন ওঠার কিছু আছে বলে আমি মনে করি না।’

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে ছয় উইকেটে পরাজিত হয়েছে সফরকারী বাংলাদেশ। সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে মাশরাফিবাহিনী।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s