https://www.youtube.com/watch?v=rwQgilZi7mY

 

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে দ্রুত সিংগেল নিতে গিয়ে বাঁ পায়ের হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগে মুশফিকুর রহিমের। পরে রান নিতে গিয়ে ডাইভ দিলে আবারও ব্যথা পান তিনি। এতে ম্যাচের মধ্যখানেই মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। এই ইনজুরির কারণে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজেও দর্শক হয়েই থাকতে হবে দলের নিয়মিত এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকে।

এমনকি ১২ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুশফিককে পাওয়া নিয়েও দেখা দিয়েছে শঙ্কা। তবে দলটির নতুন ফিজিও ডিন কনওয়ে জানান, টেস্ট সিরিজে মুশফিককে ফেরানোই তাদের মূল লক্ষ্য। কনওয়ের মতে, এমআরআই রিপোর্ট অনুযায়ী ইনজুরি থেকে ফিরতে মুশফিকের প্রায় দুই সপ্তাহ সময় লাগবে।

এ প্রসঙ্গে দলের নতুন ফিজিও বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের আগে মুশফিকের খেলার সম্ভাবনা নেই। নেলসন হাসপাতালে তার এমআরআই করানো হয়েছে। এমআরআই রিপোর্টে মুশফিকের বাঁ হ্যামস্ট্রিংয়ে গ্রেড-১ মাত্রার চোট ধরা পড়েছে। রিপোর্ট বলছে সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরতে প্রায় দুই সপ্তাহ লাগবে।’

খুব দ্রুতই পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে সাদা পোশাকে বাংলাদেশ দলের এই অধিনায়কের। ফিজিও ডিন কনওয়ে আরও বলেন, ‘রেডিওলজিস্টের রিপোর্ট আমরা হাতে পেয়েছি। তার ইনজুরি খুব বড় কিছু নয়। তবে এটা পুরোপুরি সারতে চোটের দিন থেকে দুই সপ্তাহ সময় লেগে যেতে পারে। আশা করছি, কয়েক দিনের মধ্যেই মুশফিক অনুশীলন শুরু করতে পারবে। তাকে টেস্ট সিরিজে ফেরানোটাই এখন মূল লক্ষ্য আমাদের।’

দলের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ওঠা মুশফিক গত ছয় বছরে লাল-সবুজের হয়ে সবগুলো ওয়ানডে ম্যাচেই অংশ নিয়েছেন।২০১০ সালের ১৫ জুলাই থেকে শুরু করে চলতি বছরের ২৬ ডিসেম্বর – ছয় বছরের বেশি এই সময়ে বাংলাদেশের হয়ে সবগুলো ওয়ানডে ম্যাচে দলে ছিলেন তিনি।

এদিকে, প্রথম ম্যাচে ৭৭ রানের পর দ্বিতীয় ম্যাচে ৬৭ রানের হারের স্বাদ পায় সফরকারী বাংলাদেশ। শনিবার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে নেলসনের মাঠে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

Advertisements